চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮

রেকর্ড গড়ে জিততে হবে বাংলাদেশকে

প্রকাশ: ২০১৮-১১-০৫ ১৬:২৩:০৯ || আপডেট: ২০১৮-১১-০৫ ১৬:২৩:০৯

দ্বিতীয় ইনিংসে বড় স্কোর গড়তে ব্যর্থ হয়েছে সফরকারী জিম্বাবুয়ে। তবেও জয়ের জন্য বাংলাদেশকে রেকর্ড গড়তে হবে। দ্বিতীয় ইনিংসে আবারও তাইজুল-মিরাজ-অপুর ঘূর্ণিতে ১৮১ রানেই গুটিয়ে গেছে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার বাহিনী। কিন্তু ১৩৯ রানের লিডের সুবাদে বাংলাদেশকে ৩২১ রানের টার্গেট দিয়েছে তারা।

বাংলাদেশের মাটিতে টেস্টে এতো রান তাড়া করে কেউ জয় পায়নি। বাংলাদেশও এমন টার্গেটে জয় পায়নি কখনও। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেয়া ২১৫ রান তাড়া করে জিতেছিল বাংলাদেশ। ২০০৮ সালে বাংলাদেশের মাটিতে (চট্টগ্রাম) সর্বোচ্চ ৩১৭ রান তাড়া জিতেছিল নিউ জিল্যান্ড। তাই জয় করতে হলে রেকর্ড করতে হবে রিয়াদ বাহিনীকে।

ম্যাচে হার-জিত যাই হোক। এই ম্যাচে ইতোমধ্যে কৃতিত্ব গড়েছেন তাইজুল ইসলাম। যা ঘূর্ণিতে জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে গিয়েছিল সেই তাইজুলের কৃতিত্বে আবারও গুটিয়ে গেল জিম্বাবুয়ে।

প্রথম ইনিংসে ৬ ইউকেটর পড় দ্বিতীয় ইনিংসেও এই বাঁহাতি স্পিনার ৫ উইকেট নিয়েছেন। ফলে প্রথমবারের মতো ম্যাচে ১০ উইকেট পেলেন তাইজুল। তাইজুলের সঙ্গে জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যানদের ‘শিকারে’ নেমেছেন অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। তিনি তুলে নিয়েছেন ৩ উইকেট।

আজ প্রথম ইনিংসে ১৪০ রানের লিড নিয়ে ব্যাটিং শুরু করেছিল জিম্বাবুয়ে। তাই বাংলাদেশের বোলারদের সামনে দ্রুত উইকেট তুলে নেয়ার বিকল্প ছিল না। কিন্তু কিছুতেই কিছু হচ্ছিল না। সকালে মাসাকাডজা আর ছেইরি মিলে ভালোই ভোগাচ্ছিল টাইগারদের।

তবে এদের বেশিক্ষণ থাকতে দেয়নি মিরাজ-তাইজুল। ছেইরি-টেইলর ফিরে গেলে মাসাকাদজা-উইলিয়ামস স্কোরটা বড় করতে লড়ছিল। এই যাত্রাও তাদের ব্যর্থ করে দেন তাইজুল। ফলে ধুকতে থাকা জিম্বাবুয়ের দ্বিতীয় ইনিংস ১৮১ রানেই সমাপ্ত হয়।