চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮

বৃহস্পতিবার ঐক্যফ্রন্টকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণ

প্রকাশ: ২০১৮-১০-৩০ ১০:০৯:৫৬ || আপডেট: ২০১৮-১০-৩০ ১৫:৫৮:১১

ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সংলাপে বসতে বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) সকালে ড. কামাল হোসেনের বাসায় গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের চিঠি নিয়ে সকালে ড. কামালের বাসায় যাই। এ সময় সংলাপের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর করা হয়। সংবিধান সম্মত আলোচনার জন্য এখন প্রস্তুত আওয়ামী লীগ।

প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণপত্রে লেখা রয়েছে, ‘সালাম ও শুভেচ্ছা নিবেন। আপনার ২৮ অক্টোবর ২০১৮ তারিখের পত্রের জন্য ধন্যবাদ। অনেক সংগ্রাম ও ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে সংবিধানসম্মত সকল বিষয়ে আলোচনার জন্য আমার দ্বার সর্বদা উন্মুক্ত। তাই, আলোচনার জন্য আপনি যে সময় চেয়েছেন, সে পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ১ নভেম্বর ২০১৮ তারিখ সন্ধ্যা সাতটায় আপনাদের আমি গণভবনে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।’

আমন্ত্রণপত্র পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে গণফোরামের কেন্দ্রীয় গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম পথিক বলেন, সকালে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল চিঠি নিয়ে ড. কামালের হোসেনের বাসায় এসেছিলো। চিঠিটি ড. কামাল হোসেন নিজেই গ্রহণ করেছেন। সংলাপে কারা যাবেন ঐক্যফ্রন্টের মঙ্গলবারের সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

গত রোববার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংলাপের আহ্বান জানিয়ে সাত দফা দাবি এবং ১১টি লক্ষ্য সংবলিত চিঠি দেয় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আওম শফিকুল্লাহ চিঠিটি পৌঁছে দেন।

এরপর সোমবার (২৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দেওয়া সংলাপ প্রস্তাবে সম্মত হয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

তিনি বলেন, আমাদের নেত্রীর পক্ষ থেকে বলতে চাই, শেখ হাসিনার দরজা কারো জন্য বন্ধ হয় না, বন্ধ থাকে না। এর মধ্য দিয়ে আপনারা বুঝতে পারছেন যে আমাদের নেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রস্তাবে সম্মত। আমরা ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সঙ্গে সংলাপে বসবো।

আর সংলাপ প্রস্তাবে সম্মত হওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।