চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

২৪ অক্টোবরেই সিলেট যাব: মান্না; নিরাপত্তার স্বার্থে আবেদন প্রত্যাখ্যান: পুলিশ

প্রকাশ: ২০১৮-১০-২১ ১৩:০২:৩৫ || আপডেট: ২০১৮-১০-২১ ১৮:২৯:৪৪

বিএনপি ও কয়েকটি দলের সমন্বয়ে নবগঠিত জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আগামী ২৪ অক্টোবর সিলেটে সমাবেশ করতে চাইলে এবারও তাদের অনুমতি দেয়নি পুলিশ।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘সমাবেশের অনুমতি কেন দেওয়া হয়নি তা আমরা ঠিক জানি না। তবে ২৪ অক্টোবরেই আমরা সিলেট যাব, হযরত শাহজালাল (রহ.) ও হযরত শাহপরান (রহ.) মাজার জিয়ারত করব এবং লোকজনের সঙ্গে কথা বলব। আমরা সিলেট গেলেই হাজার হাজার মানুষ ছুটে আসে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মাজার জিয়ারতে তো কোনো বাধা নেই। তারপরও বাধা দিতে পারে পুলিশ। আসলে জীবনে যা কখনও দেখি নাই, তাই হচ্ছে এখন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘নিরাপত্তার স্বার্থে তাদের আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। তবে এখনও তো সময় পেরিয়ে যায়নি। আমাদের দেখতে হবে যে, এখানে সমাবেশ করার পরিস্থিতি আছে কি না। আমাদের বসতে হবে। আলোচনা করতে হবে। পুরো শহরকে নিরাপদ করতে হবে।’

সমাবেশের অনুমতি না পেলেও, মাজার জিয়ারতের উদ্দেশ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সিলেট আসার ঘোষণার ব্যাপারে পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘এক্ষেত্রে আমরা খেয়াল রাখবো কোথাও কোনো নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড ঘটে কি না।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট অনুমতি না পেলেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি নির্বাচনকে লক্ষ্যে রেখে দলীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন ৫৮ দলের ‘সম্মিলিত জাতীয় জোট’ গতকাল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশও করেছে। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা দিয়েছেন দলটির চেয়ারম্যান এরশাদ।

কিন্তু এর পরও পুলিশের ভূমিকাকে পক্ষপাতমূলক মানতে নারাজ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তার ভাষায়, ‘এখানে পক্ষপাতিত্বের কোনো বিষয় নেই। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের অনেক নেতার শাস্তি হয়েছে। এমনকি দলটি দলটি ধারাবাহিকভাবে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকারও প্রমাণ পাওয়া গেছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে তারা ঘোষণা দিয়েছে, সরকার উৎখাতে প্রয়োজনে তারা শয়তানের সঙ্গেও ঐক্য করবে। তাদের এসব কথা বিবেচনায় নিয়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার সাহস পাচ্ছে না।’

গতকাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে স্থানীয় বিএনপির এক প্রতিনিধিদল বন্দর বাজার এলাকায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়ার কার্যালয়ে দেখা করে সমাবেশের ব্যাপারে অবহিত করে ও সহযোগিতা চেয়ে চিঠি দেন।

এর আগেও আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে সমাবেশ করার জন্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আবেদন প্রত্যাখ্যাত হয়েছিল।