চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ বন্দরনগরীতে

প্রকাশ: ২০১৮-১০-১২ ১৪:৪৫:৪৮ || আপডেট: ২০১৮-১০-১২ ১৪:৪৫:৪৮

টানা বৃষ্টিতে নগরজীবনে দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। বৃষ্টির সঙ্গে জোয়ারের পানি যোগ হয়ে নগরের নিচু এলাকায় পানি জমে গেছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। শুক্রবার সকাল নয়টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে ৪৫ দশমিক ২ মিলিমিটার।

চট্টগ্রাম আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ভারতের উড়িষ্যা এবং তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় তিতলি সামান্য উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে একই এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

শুক্রবার (১২ অক্টোবর) ভোর ছয়টায় উড়িষ্যা ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় এটি অবস্থান করছিল। ঘূর্ণিঝড়টি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে পারে।

গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য থাকায় উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

সাগর উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে বড় জাহাজ থেকে সার, গম, চাল, চিনি, ক্লিংকার ইত্যাদি খোলাপণ্য ছোট জাহাজে খালাস বন্ধ রয়েছে। তবে বন্দরের মূল জেটিতে কনটেইনার উঠানামা অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে টানা বৃষ্টিপাতের কারণে পাহাড়ধসের আশঙ্কায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আজও নগরের ঝুঁকিপূর্ণ কয়েকটি পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। লালখান বাজার এলাকায় বেলা ১১টা থেকে অভিযানে নেতৃত্ব দিয়েছে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিলুর রহমান।