চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রামে উন্নয়ন দেখতে আসা মানুষের ভিড় ‘বিদেশ যাওয়ার’ স্টলে

প্রকাশ: ২০১৮-১০-০৪ ২২:৫৫:৩২ || আপডেট: ২০১৮-১০-০৫ ১৭:৩২:৫৪

সরকারি-স্বায়ত্তশাসিত, উন্নয়ন সহযোগীদের দেড় শতাধিক স্টল নিয়ে চট্টগ্রাম নগরীতে বর্ণাঢ্যভাবে শুরু হয়েছে উন্নয়ন মেলা। তবে এত স্টলের ভিড়ে শুরুর পর থেকেই নজর কেড়েছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের জনশক্তি ও কর্মসংস্থান অফিসের চারটি স্টল। কাজের জন্য বিদেশ যাওয়ার স্বপ্ন নিয়ে হাজারো তরুণ-যুবক দাঁড়িয়েছিলেন স্টলগুলোর সামনে। খবর সারাবাংলা

দেশব্যাপী সরকারি কর্মসূচির অংশ হিসেবে নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়াম চত্বরে বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) সকাল থেকে শুরু হয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় উন্নয়ন মেলা।

সকালে জনশক্তি ও কর্মসংস্থান অফিসের স্টলগুলোতে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিটি স্টলেই বিভিন্ন বয়সী ছেলেমেয়েদের ভিড়। এর মধ্যে দু’টি স্টল বিদেশ গমনেচ্ছুদের জন্য। এর মধ্যে একটি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের। আরেকটি স্টল বাংলাদেশ-কোরিয়া ফ্রেন্ডশিপ ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এবং আরেকটি মহিলা ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের। মেলায় সবচেয়ে বেশি ভিড় দেখা গেছে এইসব স্টলেই।

বিদেশ গমনেচ্ছুদের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন, বায়োমেট্রিক পদ্ধতি ফিঙ্গার প্রিন্ট সংগ্রহ করা হচ্ছে দুটি স্টলে। সেখানে তাদের নাম, পূর্ণাঙ্গ ঠিকানার পাশাপাশি মোবাইল নম্বরও নেওয়া হচ্ছে।

সেই সারিতে দাঁড়িয়েছিলেন চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি থেকে আসা ২২ বছর বয়সী জুয়েল রানা। তিনি বলেন, আমার ওয়েল্ডিং ট্রেনিং আছে। সার্টিফিকেটও আছে। বিদেশ যেতে পারলে ভালো হবে।

ফেনী থেকে আসা মো. হাবিব  বলেন, ‘এখানে রেজিস্ট্রেশন করে রাখছি। সরকারিভাবে যদি যাওয়া যায়, তাহলে টাকা বেশি লাগবে না। কিন্তু রেজিস্ট্রেশন করার পরও যাওয়া যাবে কি না বুঝতে পারছি না।’

জেলা জনশক্তি ও কর্মসংস্থান ব্যুরোর সহকারী পরিচালক জহিরুল আলম মজুমদার বলেন, ‘যারা বিদেশ যেতে চান, তাদের জন্য আমাদের যেসব সেবা আছে সেগুলো আমরা মেলায় একসঙ্গে দিচ্ছি। যারা মেলায় আমাদের স্টলে আসছেন তাদের অনলাইন নিবন্ধন হয়ে যাচ্ছে। অনেকে দালাল ধরে বিদেশ যেতে চান, তাই কেউ যাতে দালালের খপ্পরে না পড়েন, তাদের সচেতন করার চেষ্টা করছি। আমাদের মাধ্যমে গেলে নিরাপদে যাওয়া যাবে। মর্যাদাপূর্ণ অভিবাসনের প্রত্যাশা আছে মানুষের। আমরা সেটাই দেওয়ার চেষ্টা করছি।’

দুপুর ২টা পর্যন্ত প্রায় এক হাজার তরুণ-যুবক বিদেশ যাবার আগ্রহ নিয়ে নিবন্ধন করেছেন বলে জানান জহিরুল আলম মজুমদার।

এর বাইরে দুটি স্টলে কারিগরি প্রশিক্ষণের জন্য নিবন্ধন করছেন তরুণ-তরুণীরা। ২৬টি খাতে চাকরির জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা আছে এই দুটি প্রতিষ্ঠানের স্টলে। এই প্রশিক্ষণ নিয়ে বিদেশে চাকরি পাওয়াও সহজ বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জাহাঙ্গীর আলম।

উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজের সামনে থেকে সকালে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। সেখানে সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারি ও স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একযোগে সারাদেশের উন্নয়ন মেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সরাসরি প্রচার করা হয় জিমনেশিয়াম চত্বরে।

প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠান থেকে চট্টগ্রামে উন্নয়ন মেলার সভায় বক্তব্য রাখেন- বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ কায়কাউস, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নান, সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াছ হোসেন এবং পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা।

উন্নয়ন মেলায় ১৭০টিরও বেশি স্টল আছে। এই মেলা চলবে শনিবার পর্যন্ত।