চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের চাঁদা আদায়ে ছাত্রলীগের বাধা, আহত ২

প্রকাশ: ২০১৮-১০-০২ ১৯:২৮:১৮ || আপডেট: ২০১৮-১০-০৩ ১৩:৫৬:৩৫

চট্টগ্রাম কলেজে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ভর্তি ফি’র সাথে চাঁদা আদায় করছিলেন কলেজ ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটি। জানতে পেরে এই চাঁদা আদায়ের প্রতিবাদ করেন কমিটির সদ্য পদত্যাগ করা নেতারা। এতে দুই গ্রুপের হাতাহাতিতে প্রতিবাদকারী গ্রুপের দুই ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন। খবর বার্তা২৪

মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টায় কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে এ ঘটনা ঘটে।আহত ছাত্রলীগের কর্মীরা হলেন কৌশিক বিশ্বাস ও মনছুর। আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রথম বর্ষের ভর্তিতে নির্ধারিত মূল্যর চেয়ে সংসদীয় ফি নামে ১০০ টাকা বাড়তি (চাঁদা) নিচ্ছিল ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির নেতারা। বিষয়টি জানতে পেরে কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি থেকে সদ্য পদত্যাগকারী নেতারা এতে বাধা দিলে উভয় গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি হয়।

এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির নেতা-কর্মীরা রড নিয়ে প্রতিবাদকারীদের ওপর হামলা চালালে মাথায় আঘাত পেয়ে মনছুর ও কৌশিক আহত হন। পরে পুলিশের সহায়তায় তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এর আগে গত সোমবার সমাজবিজ্ঞান বিভাগে ভর্তিতেও ১০০ টাকা চাঁদা নেওয়া হয়েছিল।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবু নাসের মো. কাশেম বলেন, ‘গতকাল বাড়তি টাকা নেওয়া হলেও আমরা মানা করার পর তা বন্ধ হয়েছে।’

চাঁদা আদায়ের বিষয়ে জানতে চাইলে কমিটি থেকে পদত্যাগ করা সাংগঠনিক সম্পাদক মো. বেলাল বলেন, ‘ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ভাঙিয়ে সংসদীয় ফি’র নামে বাড়তি টাকা আদায়ে বাধা দিলে দুজনকে মারধর করা হয়।’

মোনসির সোহান নামে এক শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, ‘আমাদের ভর্তির জন্য পাঁচ হাজার ৬০ টাকা হলেও যাবতীয় ফরম জমা দেওয়ার সময় ১০০ নামে টাকা বাড়তি নেওয়া হয়েছে।’

এদিকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ অস্বীকার করে কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুজয় মল্লিক সবুজ বলেন, ‘আপনারা জানেন বেশ কয়েকদিন ধরে কমিটিকে বির্তকিত করার জন্য একটি পক্ষ কাজ করছে। এর অংশ হিসেবে আজকেও তারা ঝামেলা করার চেষ্টা করেছে। যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, মিথ্যা। এর সাথে ছাত্রলীগ জড়িত রয়।’