চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

বোরখা পরে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আ. লীগের ২ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশ: ২০১৮-১০-০১ ২৩:৪৮:৪১ || আপডেট: ২০১৮-১০-০১ ২৩:৪৮:৪১

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছে। সোমবার বিকেলে মোরেলগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনসার আলী দিহিদার (৫৩) ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য শেখ শুকুর আলী (৪৫)। হামলায় তাঁতীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক বাবুল শেখ গুরুত্বও আহত হয়েছেন। এ সময় আওয়ামী লীগ নেতা আনসার আলীরসহ দুটি বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে।

আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় দৈজ্ঞহাটি গ্রামের ফরিদ শেখের ছেলে বাবুল শেখকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, আলতি বুরুজবাড়ি গ্রামের মৃত লতিফ খানের ছেলে ও দৈবজ্ঞহাটি ইউপি চেয়রম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরের ভাগ্নে মো. মিল্টন খান। ঘটনায় সাথে জড়িত সন্দেহে দৈজ্ঞহাটি ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ফকিরসহ ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

গুরুতর আহত বাবুল শেখ জানান, দৈবজ্ঞহাটি বাজার থেকে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

পরে তাকে বোরখা পরতে বাধ্য করা হয়। বোরখা পরা অবস্থায় তাদের এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষরা। মোড়েলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজিজুল হক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৩ জন জনকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠায়। এর মধ্যে ২ জন মারা গেছে।

ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। দৈজ্ঞহাটি ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরকে হেফাজাতে নেয়া হয়েছে। এলাকাবাসি জানান, আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। তারই জেরে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে।