চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮

বিমানের যাত্রী বাসে চড়ে কক্সবাজারে!

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-২৬ ২২:২৩:২৫ || আপডেট: ২০১৮-০৯-২৬ ২২:২৩:২৫

যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণের সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের (বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এস ২-এজেএ) ঢাকা থেকে কক্সবাজারগামী ফ্লাইট। বাসে ২৬ জন যাত্রীকে কক্সবাজারে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করে ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) আনুমানিক দুপুর ১ টা ১০ মিনিটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ৪টার দিকে বিমানের যাত্রীদের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দামপাড়া স্টেশনে নিয়ে আসা হয়। পরে সাড়ে ৪টার দিকে রিলেক্স পরিবহন নামে একটি বাস বিমানের যাত্রীদের কক্সবাজারের নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

এদিকে, দুর্ঘটনার কবলে পড়া বিমানে থাকা এক যাত্রী সময় সংবাদকে বলেন, ‘কক্সবাজারে ল্যান্ড করার সময় আমাদের বলা হলো, তারা ল্যান্ড করবে। কিন্তু ল্যান্ড করতে গিয়ে হঠাৎ করেই আবার উপরে উঠায়ে নিল। এ সময় আমরা সবাই ভয় পেয়ে গেলাম, জিজ্ঞেস করার পর তারা বলল যে, সিগনালে তাদের সমস্যা। এরপর অনেকক্ষণ তারা আমাদের নামায়নি। এরপর তারা আমাদেরকে চিটাগং এয়ারপোর্টে নামায় দেছে। আমরা সবাই কোনোমতে ইমারজেন্সি লাইনে নেমে আসছি। এখানে মোটামুটি সবাই ইনজুরড, হাত-পা কেটে গেছে। ইভেন আমার বড় বোনের অবস্থা একটু বেশিই খারাপ, ওনাকে হসপিটালে নেওয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, ঢাকা থেকে কক্সবাজার যাওয়ার পথে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় শাহ আমানত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করার সময় বিমানটি মুখ থুবড়ে পড়ে। এ সময় বিমানে ১৬৪ জন যাত্রী ছিলেন বলে জানা গেছে। এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক অফিসার জানান, ঢাকা থেকে কক্সবাজারগামী ইউএস বাংলার বিমানটি যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে। এ সময় বিমানটিতে ১৬৪ জন যাত্রী এবং ৭ জন ক্রু ছিলেন। এ ঘটনার পর থেকে রানওয়ে বন্ধ আছে। যাত্রীদের উদ্ধার কাজ করে টার্মিনালে নেওয়া হয়েছে।

বিমানবন্দর সূত্র জানায়, বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা থেকে ডিএস ১৪১ ফ্লাইটটি কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা দেয়। দুপুর সাড়ে ১২টায় কক্সবাজার পৌঁছার কথা ছিল। তবে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় উড়োজাহাজের সামনের চাকা না খোলায় সেটি কিছুক্ষণ চট্টগ্রামের আকাশে চক্কর দেয়। পরে দুপুর দিয়ে ১টা ১০ মিনিটে জরুরি অবতরণ করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউএস-বাংলার ৭৩৭ মডেলের বোয়িং বিমানটির সামনের নোজ হুইল কাজ না করায় পেছনের চাকাগুলোর ওপর ভর করে বিমানটি শাহ আমানতে অবতরণ করে। অবতরণের সময় বিমানটির সামনের অংশে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। সেখানে উপস্থিত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত তা নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ইউএস-বাংলার জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক কামরুল ইসলাম জানান, উড়োজাহাজটির সামনের অংশে কোনো একটি ত্রুটি ধরা পড়ার পরেই তা দ্রুত অবতরণের সিদ্ধান্ত হয়। তবে, যাত্রীদের অক্ষত অবস্থায় নামানো সম্ভব হয়েছে।