চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮

‘অাত্মহত্য মহাপাপ’ কেবল ভীতু, কাপুরুষের বক্তব্য লিখে নিজেই আত্মহুতি দিলেন ফটিকছড়ির এক যুবক!

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-২২ ০১:০২:২০ || আপডেট: ২০১৮-০৯-২২ ১৯:২৭:০৮

মীর মাহফুজ অানাম
সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক

মাত্র পাঁচদিন অাগে নিজের ফেইসবুক টাইম লাইনে লিখেছিলেন’ ”অাত্মহত্য মহাপাপ” এটা কেবল ভীতু ও কাপুরুষদের বক্তব্য।

স্ট্যাটাসটির পোষ্ট করার পাঁচ দিনের মাথায় নিজে অাত্মহত্যর পথ বেছে নিলেন ফটিকছড়ির এক যুবক। তার প্রতিটি স্ট্যাটাসে সাহিত্যের ছোঁয়া থাকতো। মৃত্যুর অাগে লিখনীতেও কিছুটা প্রেমের অাঘাতে অাত্মহত্যার পথ বেছে নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে গিয়েছিলেন। ছোটকালে বাবা মাকে হারিয়ে অনেকটা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত অার হতাশায় ভুগাতো থাকে, যা তার লিখনীতে প্রায় প্রকাশ হতো। অবশেষে বসত ঘরে ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে নিজের প্রাণটা দিয়ে দিলেন।

যুবকটির নাম সুনয়ন বড়ুয়া (২৬)। তার জন্ম উপজেলার অাব্দুল্লাহপুর গ্রামে। তার পিতা মৃত কান্তি বড়ুয়া। ছয় মাস বয়সে মা হরিশংকর বড়ুয়া মারা গেলে সুনয়ন পাইন্দংয়ের খালা সরুজী বড়ুয়ার কাছে বড় হয়। তিনি ঢাকার একটি বেসরকারী প্রতিষ্টানে চাকরী করতেন। ঘটনার অাট দিন অাগে তিনি বাড়ীতে অাসেন।

এ ব্যাপারে ফটিকছড়ি থানার ওসি বাবুল অাক্তার বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হচ্ছে।

স্থানীয় ইউ.পি সদস্য গৌতম বড়ুয়া বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে নিহত সুননয় তার শোবার কক্ষে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয়। রাত দশটার দিকে তার খালা ভাত খাওয়ার জন্য ডাকলে কক্ষের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। পরে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকলে ঘরের ফ্যানের সাথে গামছা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় লাশ দেখতে পায় পরিবারের স্বজনরা। পরে পরিবারের লোকজন পুলিশে খবর দেয়।’