চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রামে জন্মালো রূপকথার সাদা বাঘ!

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৯ ১২:৩০:৫৪ || আপডেট: ২০১৮-০৯-০৯ ১৭:৩৯:৪৬

সাদা বাঘটির কারণে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় দর্শক আকর্ষণ আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. শাহাদাত হোসেন।

চট্টগ্রামের চিড়িয়াখানায় জন্ম নিয়েছে দেশের প্রথম সাদা বাঘশাবক। বিরল এই সাদা বাঘশাবক দেখতে প্রায় প্রতিদিনই উপচে পড়া ভিড় দর্শণার্থীদের। ভিন্ন রঙের বাঘ দেখে মুগ্ধতার আভা তাদের চোখে মুখে।

সাদা বাঘটির কারণে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় দর্শক আকর্ষণ আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. শাহাদাত হোসেন।

শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘বাংলাদেশের কোনও চিড়িয়াখানা বা সাফারী পার্কে এ ধরনের সাদা বাঘ নেই। মা-বাবার জিনে স্বাভাবিক অবস্থার চেয়ে কিছুটা ভিন্নতার কারণে এ ধরনের প্রাণির জন্ম হয়। এ ধরনের সাদা বাঘ পার্শিয়াল ও ফুল পার্শিয়াল দুই ধরনের অ্যালবিনো হয়ে থাকে। আমাদের চিড়িয়াখানায় জন্ম নেয়া বাঘ শাবকটি ফুল পার্শিয়াল।’

২০১৬ সালের জুলাইয়ে আফ্রিকা থেকে আনা বাঘ দম্পতি রাজ-পরী বিগত ১৯ জুলাই তিনটি বাঘ শাবক জন্ম দেয়। দুঃখজনক ভাবে ২০ জুলাই বাঘিনীর পায়ের চাপায় একটি শাবক মারা যায়। মারা যাওয়া ওই শাবকটিও সাদা রঙের অ্যালবিনো ছিল।’

তিনি বলেন, ‘এই বাঘ থেকে এ ধরনের আরও সাদা বাঘ জন্ম নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বড় হলে এই সাদা বাঘটি দিয়েই বংশ বিস্তারের সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চিড়িয়াখানায় এভাবেই সাদা বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। আশা করছি আমরাও পারবো।’

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সে ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড. এ এইচ এম রায়হান সরকার বলেন, ‘মেলানিনের কারণে কোনও প্রাণী স্বাভাবিক রঙ থেকে ভিন্ন রঙের হয়ে থাকে। এই ক্ষেত্রে মেলানিন বেশি হলে কালো রঙের হয়। আর যখন মেলানিন কম হয় তখন সাদা হয়ে যায়।’