চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

‘চাঁদাবাজির প্রতিবাদ’ করায় চট্টগ্রামে যুবক খুন

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৮ ১৬:২৫:১৭ || আপডেট: ২০১৮-০৯-০৯ ১০:৪৫:২৬

চট্টগ্রাম নগরীর খুলশীর ঝাউতলা এলাকায় স্থানীয় যুবকদের দুই গ্রুপের মারামারির পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহত যুবকের নাম হৃদয় হোসেন শুক্কুর (২৪)। তার স্বজনদের অভিযোগ, এলাকায় চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করতে গিয়েই প্রাণ দিতে হয়েছে তাকে।

শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শুক্কুরের মৃত্যু হয়। এর আগে শুক্রবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে হৃদয়সহ ছয়জনকে আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়িতে দায়িত্বরত নায়েক শীলাব্রত বড়ুয়া  বলেন, গত রাতে ছয়জনকে ভর্তি করা হয়েছিল। সকালে একজনকে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেছেন। দুজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। তবে তিনজন এখনো চিকিৎসাধীন আছেন।

মাথায় আঘাতের কারণে গুরুতর আহত হয়ে শুক্কুর মারা গেছেন, চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে একথা জানান শীলাব্রত।

হাসপাতালে উপস্থিত শুক্কুরের বন্ধু মো. রুবেল জানান, ঝাউতলা এলাকায় তাদের আরেক বন্ধু সাইফুলদের বাড়ি নির্মাণের জন্য ইট নেওয়া হয়েছিল। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে ট্রাক থেকে ইট নামানোর সময় রনি ও আনিস নামে দুই সন্ত্রাসী গিয়ে তাদের বাধা দেয়। দুই লাখ টাকা চাঁদা না দিলে ইট নামাতে দেওয়া হবে না বলে জানায় সন্ত্রাসীরা। এসময় সাইফুল তার বন্ধু শুক্কুরের বাসায় গিয়ে তাকে ডেকে আনে। রুবেলসহ আরও কয়েকজন বন্ধুবান্ধব নিয়ে তারা চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করলে ঝগড়া শুরু হয়। এরপর শুরু হয় লোহার রড, ইট ইত্যাদি নিয়ে উভয়পক্ষে সংঘর্ষ।

এতে শুক্কুরের সঙ্গে সাইফুলসহ ৬ জন আহত হন।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন বলেন, ‘একজন খুন হয়েছে। কয়েকজন আহত আছে। কি কারণে মারামারি হয়েছে সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি। এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।’

নিহত শুক্কুর এলাকায় দর্জির কাজ করতেন বলেও জানান তার বন্ধু মো. রুবেল।

নগর পুলিশের উপ কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক বলেন, ‘যতটুকু জেনেছি এটা পলিটিক্যাল কোন বিষয় নয়। আমরা তদন্ত করছি এবং খুনের সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করব।’