চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮

জানি না আবার ক্ষমতায় আসতে পারব কি না : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৮ ২০:১৯:০৫ || আপডেট: ২০১৮-০৯-০৮ ২২:০৮:৩৪

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সামনে নির্বাচন জানি না আবার ক্ষমতায় আসতে পারব কি না। যদি আসি তো ভালো, আর যদি না আসতে পারি আপনাদের কাছে আমার একটা অনুরোধ- দেশের উন্নয়নের ধারাটা অব্যাহত রাখবেন।’

শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটশন প্রাঙ্গণে কৃষিবিদদের ষষ্ঠ জাতীয় কনভেনশন উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তৃতীয় মেয়াদ জনগণ ভোট দিলে ক্ষমতায় আসব; কিন্তু ভোট না দিলে বলতে পারি না যে আবার ক্ষমতায় আসব।’

তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার পর কৃষি গবেষণায় সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। কম জমিতে কীভাবে বেশি ফসল করতে হবে তার ওপর গুরুত্ব দিয়েছি। লবণাক্ত জমিতে, খরার সময় এবং জলমগ্ন জমিতে ধানচাষ করার জন্য আলাদা আলাদা ধান উদ্ভাবন করা হয়েছে। যে কারণে দেশের চারিদিকে সমানভাবে ধান উৎপাদন হচ্ছে। ফলে তৃণমূলের মানুষ অর্থনৈতিক সুফল পাচ্ছে। একটি বাড়ি একটি খামারের মধ্যদিয়ে তৃণমূলের মানুষকে আমরা স্বাবলম্বী করার চেষ্টা করছি। তাদের বলা হয়েছে এক ইঞ্চি জায়গা যেন খালি পড়ে না থাকে।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘কৃষকদের উৎপাদন সহযোগিতার জন্য মাত্র ১০ টাকায় অ্যাকাউন্ট করার সুযোগ দিয়েছি। ফলে সরকারের দেয়া ভর্তুকির টাকা সরাসরি কৃষকের অ্যাকাউন্টে চলে যাচ্ছে। কৃষিঋণ কৃষকের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। সার নিয়ে অার কোনো লুকোচুরি নেই। অথচ এই সারের জন্য বিএনপি সরকার ১৮ জন কৃষককে গুলি করে হত্যা করেছে। সেচের দাবিতে মিছিল করতে গিয়ে অনেক কৃষককে প্রাণ দিতে হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ থেকে শত বছর পরে আমরা বাংলাদেশকে কেমন দেখতে চাই সেভাবে পরিকল্পনা করছি। এ জন্য ডেল্টা প্ল্যান গ্রহণ করে এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা বিশাল সমুদ্রসীমা জয় করেছি। এই সমুদ্রসীমায় শুধু খনিজ নয়, মৎস্যসম্পদ যেন ভাণ্ডারে পরিণত হয় সে জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। কৃষির সার্বিক উন্নয়নের জন্য কৃষি কর্মকর্তাদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘গত কয়েক দশকে কৃষিতে বাংলাদেশের সাফল্য ঈর্ষণীয়। ধান, সবজি, মাছ উৎপাদনে বিশ্বে প্রথম সারির দিকে বাংলাদেশ। স্বাবলম্বী হতে যাচ্ছে, মাংস ও ডিম উৎপাদনেও।’

সরকারপ্রধান বলেন, স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু কৃষি উন্নয়নে ব্যাপক পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। তবে পরবর্তী সময়ের সরকারগুলো তা নষ্ট করে দিয়েছিল। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের কৃষি পরিকল্পনায় খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয় দেশ। আর এ খাতে বিগত সরকারগুলোর পরনির্ভরশীল নীতি নিয়ে আক্ষেপ করেন প্রধানমন্ত্রী।

-একে