চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

শিক্ষা নিয়ে বাণিজ্য বরদাস্ত করা হবে না, পোর্ট সিটি ইউনিভাসিটিতে শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৬ ১৭:১৭:৪৩ || আপডেট: ২০১৮-০৯-০৭ ১৫:০৭:২৩

আখতার হোসাইন

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিয়ে বাণিজ্য কখনো করতে দেয়া হবে না। যারা ব্যবসার মানসিকতা নিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে চান তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না করে অন্য ব্যবসা করা উচিত। শিক্ষা বাণিজ্য বরদাস্ত করা হবে না বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

তিনি আরো বলেন, উচ্চশিক্ষার দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে। সার্টিফিকেট নেয়ার মানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে আমাদেরকে। আজকের যুগে সে শিক্ষা নিতে হবে যে শিক্ষা বাস্তব কাজে ব্যবহার করা যায়। আমরা চিরকাল জ্ঞান আমদানি করে থাকি, এখনো করছি। কিন্তু এখন আর সেখানে থাকতে চাই না। আমরা চাই- জ্ঞান ও প্রযুক্তির রপ্তানিকারক হতে। সেভাবেই গড়ে তুলতে হবে নতুন প্রজন্মকে।

চট্টগ্রামের পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ফল-২০১৮ ট্্রাইমেস্টারে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি খালেদা জিয়া যে মামলাটির জন্য জেলে গেছেন তার জন্য বর্তমান সরকার দায়ী নয় দাবি করে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘২০০৮ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলাটি হয়েছিল। সেই মামলায় খালেদা জিয়া এখন জেলে। এ জন্য বর্তমান সরকার নয়, তত্ত্বাবধায়ক সরকারই দায়ী।’

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত নবীনবরণে সভাপতিত্ব করেন ভিসি অধ্যাপক ড.নূরল আনোয়ার। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন পোর্ট সির্টি ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা, প্রেসিডেন্ট ও চেয়ারম্যান এ কে এম এনামুল হক শামীম। অতিথির বক্তৃতা করেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ভাইস চেয়ারম্যান জহির আহমেদ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা বিশ্বমানের মেধাবী। তাদেরকে একটু পরিচর্যা করতে পারলে দেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে। তাদেরকে আধুনিক বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। তাদের মাঝে নৈতিক মূল্যবোধের সমন্বয় সাধন করতে হবে। তাদের নৈতিকতায় প্রজ্ঞায় তারা বিশেষিত হবে। যুগ পাল্টাচ্ছে, যুগের সাথে সাথে আমাদের মন-মানসিকতাকে পাল্টাতে হবে।

পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়টির সার্বিক পরিস্থিতি দেখে আমি মুগ্ধ। প্রতিষ্ঠানটি অল্প সময়ে মানসম্পূর্ণ শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে সফলতা অর্জন করেছে।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘বর্তমানে ৪৪টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও ১০৪টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আছে। অনেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মনে করেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে না পড়ার কারণে পার্থক্য করা হয়। স্পষ্টভাবে বলছি, আমরা শিক্ষাক্ষেত্রে কোনো পার্থক্য করিনা। চাকরিসহ সবক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা আমাদের কাছে সমান।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞাণী, গুণী ও ভালো মানুষ গড়তে বদ্ধ পরিকর। পোর্ট সিটি ইউনিভার্সিটি নবীণ শিক্ষার্থীদের পদচারণায় আজ প্রাণোচ্ছল এবং প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছে। শিক্ষার্থীরা যে স্বপ্ন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসেছে তা অবশ্যই পূরণ হবে। আর তাদের সেই স্বপ্ন পূরনের স্বাক্ষী ও পাথেয় হবে এই বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের জন্য আমাদের শুভকামনা। তাদের অর্জিত জ্ঞান দেশের ও দশের কল্যাণে ব্যয় করবে এটাই প্রত্যাশা।

ভিসি অধ্যাপক ড.নূরল আনোয়ার বলেন, বিশ্বায়নের এ যুগে শিক্ষার্থীদের পুঁথিগত জ্ঞান অর্জনই নয় সামাজিক ও নৈতিক গুণেও সমৃদ্ধ হওয়া প্রয়োজন। যাতে শিক্ষার্থীরা ভবিষ্যতে একজন দেশপ্রেমিক, সচেতন এবং দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠতে পারে। সেই লক্ষ নিয়ে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান অর্জনে মনোনিবেশ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।