চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

আমার চলার পথ কখনোই খুব সহজ নয়: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-১৪ ১৯:৫৯:৫৬ || আপডেট: ২০১৮-০৮-১৪ ১৯:৫৯:৫৬

স্বজন হারানোর বেদনা নিয়ে আমাকে চলতে হয়, আমার চলার পথ কখনোই খুব সহজ নয় আমি জানি, বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) বিকেলে, গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে, ঢাকা-টাঙ্গাইল চার লেন মহাসড়কের ২৩টি সেতু এবং ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ফেনীর ফতেপুর রেলওয়ে ওভারপাস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সেনাবাহিনী প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ।

শেখ হাসিনা বলেন, স্বজন হারানোর বেদনা নিয়ে আমাকে চলতে হয়। আমার চলার পথ কখনোই খুব সহজ নয় আমি জানি। বারবার আমাকে মৃত্যুর মুখোমুখি হতে হয়েছে। কিন্তু আমি পিছিয়ে যাইনি। আমি কখনো পিছিয়ে যাওয়ার চেষ্টাও করিনি। আমি দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যা যা করনীয় সেটাই করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার সব সময় একটা জিনিস মনে হয়। এদেশের মাুনষের সুখ সুবিধার জন্য যদি একটু ছোট কাজও করতে পারি তাহলে আমার আব্বার আত্মা তো অন্তত শান্তি পাবে। নিশ্চয়ই তিনি একটু স্বস্তি পাবেন। এটা আমার উপলব্ধি।

বক্তব্য শেষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রকলগুলোর উদ্ধোধন করেন শেখ হাসিনা। এর ফলে আর্থ সামাজিক উন্নয়নের দ্বারসহ আসন্ন ঈদ যাত্রায় স্বস্তির দ্বার উন্মোচিত হল।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে হারানোর কথা স্মরণ করতে গিয়ে কন্ঠ ভারি হয়ে আসে প্রধানমন্ত্রীর। এরপর বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মাত্র সাড়ে তিন বছরে যুদ্ধবিধস্ত বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার দিকগুলোও তুলে ধরে বলেন, পরাজিত শক্তিরা কখনো বসে থাকেনি। তাদের ষড়যন্ত্র অব্যাহত থাকে। তারা যখন দেখতে পেল, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে। তখনই চরম আঘাত হানল ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট।

বিদেশে থাকার কারণে ছোট বোনসহ নিজের বেঁচে যাওয়ার বিষয়টি তুলে ধরেও আক্ষেপ করে করেন তিনি।

গতকালকে আমাকে যখন আমাদের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানালেন ২৩টি সেতু তৈরি আছে উদ্ধোধনের জন্য এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে একটি ওভারপাস তৈরি আছে। সেটা সেপ্টেম্বর মাসের দিকে উদ্ধোধন করতে হবে। আমি বললাম কেন? আমি কালকেই করবো।

এই সংযোগ সেতু ও রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণের কারণে টাঙ্গাইল থেকে শুরু করে একেবারে ফেনী পর্যন্ত আর চলাচলের কোনো অসুবিধা হবে না বলেও প্রত্যাশা করেন শেখ হাসিনা।