চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

ছাত্রলীগের মারধরের শিকার চবি শিক্ষার্থী

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-১২ ২০:০৬:২৪ || আপডেট: ২০১৮-০৮-১২ ২০:০৬:২৪

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তির অভিযোগে ইয়াকুব রাসেল নামে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক শিক্ষার্থীকে মারধর করে গুরুতর আহত করেছে ছাত্রলীগের একাংশের কর্মীরা। মারধরকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির জ্যৈষ্ঠ সহসভাপতি মনছুর আলমের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ইয়াকুব রাসেল বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। পশ্চিম বাংলার জনপ্রিয় কমেডি শো মিরাক্কেল-৯ এর সেরা আটে ছিলেন তিনি।

অভিযোগ উঠেছে, সম্প্রতি রাসেল ফেসবুকে নিজের প্রোফাইলে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করে ‘হাসি না’ লিখে স্ট্যাটাস দেয়। মারধরের পর ইয়াকুবের বন্ধুরা তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যান। তার মাথায় গুরুতর জখম থাকায় পরে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

চবি মেডিকেল সেন্টারের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. শুভাশীষ চৌধুরী শুভ জানান, আহত ইয়াকুব রাসেলের মাথায় বেল্টের বকলেসের আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মারধরের বিষয়ে চবি ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির জ্যৈষ্ঠ সহসভাপতি মনছুর আলম বলেন, আমাদের নেত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করা ছাত্রলীগ কর্মীরা ইয়াকুব রাসেলকে প্রতিহত করেছে। আমাদের কাছে আরও স্ক্রিনশট আছে। নেত্রীর বিষয়ে কোনো আপোষ নেই। এটি চলমান প্রক্রিয়া। কটূক্তিকারীদের প্রতিহত করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র জানান, আমরা বিষয়টি শুনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।