চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮

বেবি ওয়ার্ল্ডে ঈদ-উল আজহা উপলক্ষে ৩০% পর্যন্ত ডিসকাউন্টে কেনকাটা করা সুযোগ

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-০৪ ১৩:৩৮:৪৫ || আপডেট: ২০১৮-০৮-০৪ ১৩:৪৫:২৯

আসছে পবিত্র ঈদ-উল আজহা উপলক্ষে ক্রেতা সাধারণের জন্য পন্য কেনাকাটায় ৩০% পর্যন্ত ডিসকাউন্ট ঘোষনা করেছে চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজারে অবস্থিত মা ও শিশুদের সকল পণ্য কেনাকাটার একমাত্র নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান বেবী ওয়ার্ল্ড। পুরো আগষ্ট মাস জুড়ে এই অফার উপভোগ করতে পারবেন ক্রেতারা।

বিদেশী নামি-দামী ব্রান্ডের মা ও শিশুদের প্রয়োজনীয় সকল পণ্য বেবি ওয়ার্ল্ডে এক ছাদের নীচেই পাবেন। এখানে রয়েছে ০-১০ ব্ছর বয়সী শিশুদের খাবারসহ সব ধরণের আকর্ষণীয় ডিজাইনের পণ্য। বেবি ওয়ার্ল্ডে নারী ক্রেতাদের জন্য রয়েছে নারী বিক্রয় কর্মী। আপনি এখানে পাবেন লন্ডন, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ডসহ বিশ্বের নামীদামী ব্রান্ডের মায়েদের গভর্কালীন খাবার, প্রেগনেন্সি বেল্ট, সিক্রেট ওয়্যার, বেবি কেরিয়ার, বাচ্চাদের জুতা, মোজা, খেলনা,খাবার কসমেটিকস, কাপড়, চকলেট, স্কুল ব্যাগ, গিফটসহ সবধরণের সামগ্রী। ।

চকবাজারে কলেজ রোড়ের সাইমুন হোটেলের পাশে মুনিরিযা ভবনের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত বেবী ওয়ার্ল্ড এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক আনওয়ারুল করিম জানান, গত রমজান মাসে আমরা ০-১০ বছর বয়সী শিশু ও মায়েদের জন্য সকল ধরণের বিদেশী পণ্য নিয়ে বেবী ওয়ার্ল্ড শুরু করেছি। আমরা ক্রেতাদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। তাই ক্রেতাদের সুবিধার্থে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ডিসকাউন্ট ঘোষনা করেছি। আমরা মহিলাদের জন্য নারী বিক্রয় কর্মী দ্বারা সেবা প্রদান করি। বেবী ওয়ার্ল্ড শুক্রবারসহ সপ্তাহে ৭দিন খোলা থাকে। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন লন্ডনে থাকাকালীন সময়ে ওখানকার মাদার কেয়ারসহ বাচ্চাদের বিভিন্ন ব্রান্ডের স্টোর দেখে দেশে এর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করি। এরপর দেশে এসে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য থাইল্যান্ড, মালেশিয়া, চায়না ও ইন্ডিয়ায় বাচ্চাদের ব্রান্ডেড দোকানগুলো ভিজিট করি। তারপর আমরা এ উদ্যোগ নিই। এরমধ্যে আমরা ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। ক্রেতারা একজায়গায় মনসম্পন্ন সব পণ্য পেয়ে খুব খুশি।অনেক দূর-দূরান্তের কাস্টমার তাদের চাহিদা আমাদের জানিয়ে দেন, আমরা চাহিদামত পণ্য এনে ওনাদের জানিয়ে দিই।

সম্পূর্ন শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত বেবী ওয়ার্ল্ডের ডিরেক্টর তরুন ব্যবসায়ী জমির উদ্দিন বলেন, আমাদের এখানে সকল পণ্যই বিদেশী নামীদামী ব্রান্ডের। বিশ্বায়নের কারণে মানুষের চাহিদার ধরণ কিছুটা পরিবর্তিত হচ্ছে। আমরা সেই পরিবর্তনের জন্যই একই ছাদের নীচে শিশু ও মায়েদের সকল পণ্যের সমাহার করেছি। আমাদের ফেসবুক পেইজে ছবিসহ যে কোন প্রোডাক্ট এর চাহিদা জানালে আমরা তা কালেক্ট করে ক্রেতাকে জানিয়ে দিই। অচিরেই আমাদের প্রোডাক্ট অনলাইনে কেনা-কাটার ব্যবস্থা হচ্ছে। মানুষের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পাশাপাশি চাহিদা এবং রুচির পরিবর্তন হয়েছে। অধিকাংশ ক্রেতা ব্রান্ডিং এবং একদামে পণ্য কিনতে আগ্রহী। তাছাড়া সারা মার্কেট ঘুরাঘুরি না করে এক জায়গা থেকে মা ও শিশু’র সবার বাজার একমাত্র বেবী ওয়ান্ডেই পাওয়া যাচ্ছে।