চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই চট্টগ্রাম থেকে দূরপাল্লার বাস বন্ধ!

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-০৩ ১৪:৩৪:৫৭ || আপডেট: ২০১৮-০৮-০৪ ১০:২০:৩৩

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ‘নিরাপত্তাহীনতার’ অজুহাতে চট্টগ্রাম থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে পরিবহন মালিক শ্রমিকরা।শুক্রবার সকাল থেকেই তারা নিরাপত্তাহীনতার অজুহাত তুলে অনির্দিষ্টকালের এ ধর্মঘটে নেমেছেন।

এদিকে হঠাৎ করে বাস বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা। অনেকেই বাস স্ট্যান্ডে এসে গন্তব্যে যেতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন। তবে মোটর শ্রমিকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।

এদিকে,  পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই চট্টগ্রামে দূরপাল্লার বেশিরভাগ কাউন্টার বন্ধ রাখা হয়েছে। ধর্মঘট হিসেবে না দেখে বিষয়টিকে ‘চালক-শ্রমিকদের নিরাপত্তাহীনতা’ হিসেবে দেখছেন পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতারা।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের পূর্বাঞ্চলীয় সভাপতি মৃণাল চৌধুরী বলেন, শ্রমিকদের ধর্মঘট নেই। নিরাপত্তাহীনতার কারণে গাড়ি চালাচ্ছেন না তারা। সকালে চট্টগ্রামের একে খান এলাকা থেকে কিছু বাস ছেড়ে গেছে। পরে শুনলাম আর গাড়ি যাচ্ছে না। তবে চট্টগ্রাম-নোয়াখালী রুটে বাস চলছে না। আমরা চালক-শ্রমিকদের বলেছি যদি তোমার সুযোগ পাও গাড়ি চালাবে। ছাত্রদের সঙ্গে কোনো ধরনের বিরোধে যাবে না।

সরেজমিনে চট্টগ্রামের গরীবউল্লাহ শাহ মাজার বাস কাউন্টারে গিয়ে দেখা যায় যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। সবাই আটকা পড়েছে পরিবহন মালিক শ্রমিকদের এই আকস্মিক কর্মবিরতিতে। একই চিত্র নগরীর বি আর টি সি,বহদ্দারহাট বাস টার্মিনাল, শাহ আমানত সেতু সংলগ্ন বাস কাউন্টার, অক্সিজেন বাস স্ট্যান্ড, অলংকার মোড় বাস স্ট্যান্ডসহ নগরীর বিভিন্ন অস্থায়ী বাস কাউন্টারগুলোতে।

গরীবউল্লাহ শাহ মাজার বাস কাউন্টারে যাত্রী ওয়াহেদুল ইসলাম বলেন, ‘মিটিং-মিছিল, আন্দোলন করবে তারা, আর তার ভোগান্তি পোহাতে হবে আমাদের মতো সাধারণ মানুষকে। যত ঝামেলা, ভোগান্তি সব আমাদের সহ্য করতে হয়।