চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮

কর্ণফুলীর তীরে শান্তির বসতি এপিক ডি রিভারাইনে আবাসন মেলার উদ্বোধন

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২৭ ১০:৫৫:৩৯ || আপডেট: ২০১৮-০৭-২৭ ১০:৫৫:৩৯

কর্ণফুলী নদীর তীরে শান্তির বসতি পেতে চলে আসুন এপিক ডি রিভারাইন প্রজেক্টে। চট্টগ্রাম মহানগরীর ঐতিহাসিক ফিরিঙ্গিবাজার এয়াকুব নগরের দোভাষ লেইনের এ প্রজেক্টে এখন মধ্যবিত্তদের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে ফ্ল্যাট মিলছে। ফ্ল্যাট বিক্রয় উপলক্ষে এপিক ডি রিভারাইন-এ শুরু হয়েছে এপিক আবাসন মেলা।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) বিকেল পাঁচটায় ফিতা ও কেক কেটে মেলার উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি দৈনিক আজাদীর সম্মাদক এম এ মালেক। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এপিক প্রপার্টিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার এস এম আবু সুফিয়ান, ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার মো. আনোয়ার হোসেন, দোভাষ পরিবারের পক্ষে আবদুর রহমান দোভাষ, আবদুর নুর দোভাষ, এপিক প্রপার্টিজের হেড অব সেলস এন্ড মার্কেটিং খুরশিদ আলমসহ অন্যান্য কর্মকর্তারাসহ এপিক প্রপার্টিজের কর্মকর্তা-কর্মচারি, দোভাষ পরিবারের সদস্যরা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এম এ মালেক বলেন, ‘এপিক চট্টগ্রামসহ দেশের খ্যাতনামা একটি আবাসন প্রতিষ্ঠান। গুণেমানে এবং দৃষ্টিনন্দন নির্মাণশৈলীর কারণে এপিকের প্রকল্পগুলো সবসময় আগ্রহী ক্রেতাদের চাহিদা পূরণ করে। সঠিক সময়ে ফ্ল্যাট হস্তান্তর করে উন্নত গ্রাহক সেবার মাধ্যমে এপিক প্রপার্টিজ দৃঢ় পায়ে এগিয়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, এপিক একটি বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান বলেই চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী দোভাষ পরিবার তাদের সাথে যৌথভাবে ফ্ল্যাট নির্মাণ করতে এগিয়ে এসেছে। এতে ব্যবসায়ীকভাবে এপিককে অনেক এগিয়ে নেবে।’

অনুষ্ঠানে এপিক প্রপার্টিজের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার এস এম আবু সুফিয়ান বলেন, ‘এপিক সবসময় মানসম্পন্ন ফ্ল্যাট কোন ছাড় দেয় না। যে কারণে অন্য প্রকল্পগুলোর মতো এপিক ডি রিভারাইন প্রকল্পটিও বুয়েট আর্কিটেক্ট দ্বারা ডিজাইন করা হয়েছে। তাছাড়া নগরীর ব্যস্ততম আদালত পাড়া, নিউ মার্কেট, বাংলাদেশ ব্যাংকসহ নামীদামী স্কুল কলেজের সন্নিকটে হওয়া এবং কর্ণফুলী নদী তীরবর্তী মনোরম পরিবেশে প্রকল্পটির অবস্থান হওয়ার কারণে ক্রেতাদের চাহিদা মেটাতে সক্ষম হবে।’ বিজ্ঞপ্তি