চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮

রাইফা হত্যা তদন্তে ম্যাক্স হাসপাতালে বিএমডিসির টিম

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২৪ ১৪:০৫:৫০ || আপডেট: ২০১৮-০৭-২৪ ১৪:০৫:৫০

ম্যাক্স হাসপাতালে রাফিদা খান রাইফার মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে আগামীকাল মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালটিতে যাচ্ছেন বিএমডিসির গঠিত চার সদস্যের তদন্ত কমিটি।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে ম্যাক্স হাসপাতালে সরেজমিনে তদন্ত চালাবে। সাক্ষ্য দিতে ম্যাক্স হাসপাতালের চেয়ারম্যান শিব শংকর সাহা, মহা ব্যবস্থাপক রঞ্জন প্রসাদ গুপ্ত, শিশু বিশেষজ্ঞ বিধান রায় চৌধুরী, মৃত্যুর দিন দায়িত্বরত চিকিৎসক দেবাশীষ সেন গুপ্ত, শুভ্রদেব, নার্স ও ওয়ার্ড বয়দেরও উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।

এছাড়া রাইফার বাবা ও মা এবং চিকিৎসা চলাকালে ঘটনাস্থলে ছিলেন এমন কেউ থাকলে তাকেও উপস্থিত থাকতে অনুরোধ জানিয়েছে তদন্ত কমিটি।

তবে তদন্ত কমিটির ডাকে ম্যাক্স হাসপাতালে যেতে অনীহা প্রকাশ করেছেন রাইফার বাবা রুবেল খান।

ম্যাক্স হাসপাতালে দুঃসহ স্মৃতি থাকার কথা উল্লেখ করে রুবেল খান বলেন, আমি আর সেখানে যেতে চাই না। তবে তারা যদি অন্য কোথাও আমার সাথে কথা বলতে চায়, তবে আমি সহায়তা করব।

প্রসঙ্গত দৈনিক সমকালের চট্টগ্রাম ব্যুরোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রুবেল খানের আড়াই বছর বয়সী মেয়ে রাইফা গলায় ব্যথা নিয়ে গত ২৮ জুন বিকালে ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর ২৯ জুন রাতে তার মৃত্যু হয়।

‘ভুল চিকিৎসায়’ তার মৃত্যু হয়েছে অভিযোগ করে বিক্ষোভ করেন সাংবাদিকরা। পরে ঘটনা তদন্তে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে একটি কমিটি করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি কমিটি এ ঘটনার তদন্ত করে।

সিভিল সার্জনের নেতৃত্বাধীন কমিটি তাদের প্রতিবেদন দেয়, যাতে কর্তব্যরত চিকিৎসক, নার্স ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দায়িত্বে অবহেলা এবং গাফিলতির প্রমাণ পাওয়ার কথা জানিয়ে তিন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

এই তিন চিকিৎসক হলেন- ডা. বিধান রায় চৌধুরী, ডা. দেবাশীষ সেন গুপ্ত এবং ডা. শুভ্র দেব।

তাদের মধ্যে দেবাশীষ ও শুভ্রকে ইতোমধ্যে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে বলে ম্যাক্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।