চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

সোনা চোরাচালান মামলায় বিমানবন্দরের সাবেক কর্মকর্তা কারাগারে

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১৫ ১৯:২১:৩৭ || আপডেট: ২০১৮-০৭-১৫ ১৯:২১:৩৭

সোনা চোরাচালান মামলায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপকের সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী মোমেন মোকশেদকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। রবিবার (১৫ জুলাই) চট্টগ্রাম মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক আকবর হোসেন মৃধা এ আদেশ দেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পিপি সানোয়ার আহমেদ লাভলু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন,‘আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।’ ঘটনার সময় মোমেন মোকশেদ বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপকের ব্যক্তিগত সহকারীর দায়িত্বে ছিলেন বলে তিনি জানান।

মামলার এজহার থেকে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১ নভেম্বর এয়ার এরাবিয়ার একটি ফ্লাইটে করে চট্টগ্রামে আসেন দুবাই প্রবাসী আলাউদ্দিন চৌধুরী। লাগেজ হারিয়ে গেছে অভিযোগ করে ওই দিন আলাউদ্দিন বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। পরদিন বিমানবন্দরের ‘হারানো ও প্রাপ্তি’ শাখায় আলাউদ্দিনকে নিয়ে হাজির হন মোমেন মোকশেদ। এসময় নিয়ম বর্হিভূতভাবে আলাউদ্দিনের লাগেজটি ছাড় করাতে চাইলে স্ক্যানিং করে তাতে ২৫টি সোনার বার পাওয়া যায়। এ ঘটনায় ২০১৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর নগরীর পতেঙ্গা থানায় স্বর্ণ চোরাচালানের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। একই মামলায় ২০১৬ সালের ১৬ জুন মোমেন মোকশেদসহ সাতজনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা।