চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রামে চিকিৎসকের অবহেলায় এবার বৃদ্ধের মৃত্যুর অভিযোগ!

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-০৪ ১৩:৪১:২৩ || আপডেট: ২০১৮-০৭-০৪ ১৩:৪১:২৩

চট্টগ্রামে ডাক্তারের অবহেলায় হাজী মোহাম্মদ লোকমান চৌধুরী (৬৯) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (০৪ জুলাই) রাত ৯ টার দিকে পাচঁলাইশ থানার মক্কি মসজিদের সামনে অবস্থিত শেভরণ ভবনের ৯ তলায় ফরট্রিস নামক একটি বেসরকারি ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে ।

নিহত লোকমান চৌধুরী নগরীর চাঁদগাও থানার সাবানঘাটা এলাকার বাসিন্দা। শ্বাসকষ্টজনিত রোগে তিনি গত একমাস ধরে এ ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ছিলেন বলে জানিয়েছেন তার স্বজনরা।

নিহত লোকমানের স্বজনরা জানান, ক্লিনিকের চিকিৎসক শিমুল কুমার ভৌমিকের অবহেলায় লোকমানের মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তারা শিমুল কুমার ভৌমিকের সাথে কথা বলার চেষ্টা করলে তিনি কৌশলে পালিয়ে যান।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মধ্যরাত পর্যন্ত ডাক্তার কর্মকর্তা কর্মচারী ও নিহতের স্বজনদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে।

খবর পেয়ে পাঁচলাইশ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে।

ঘটনাস্থলে থাকা পাঁচলাইশ থানার এসআই মোজাম্মেল হক বলেন, নিহত লোকমানের স্বজনদের অভিযোগ চিকিৎসকদের অবহেলায় তাদের রোগী মারা গেছে। বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি।

নিহত হাজী মোহাম্মদ লোকমানের ছেলে ফরহাদ উদ্দিন রুবেল বলেন, আমার বাবার এ পরিস্থিতিতে মুখে মাক্স লাগিয়ে খাওয়ানো হয়। কিন্তু ডাক্তার শিমুল ভৌমিক মাক্স খুলে নিয়ে পরিক্ষা নিরীক্ষা করতে থাকলে আমার আব্বা আমার চোখের সামনে মারা যায়। মাক্স খুলে নেয়ার পর আব্বার শ্বাস প্রশ্বাস উঠানামা করতে থাকলে তিনি ইশারা দিয়ে মুখে মাক্স লাগাতে বলেন।

এসময় ডিউটি ডাক্তারও বার বার মাক্স লাগাতে চাইলে ডাক্তার শিমুল ভৌমিক মাক্স লাগাতে না দিয়ে বলতে থাকেন আরেকটু দেখি, আরেকটু দেখি। এই করতে করতে আমার আব্বা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। পরে ডাক্তার শিমুল আমাদের টাকা দেয়ার প্রস্তার দিয়ে বলেন যা হবার হয়ে গেছে আপনারা কিছু টাকা নিয়ে চলে যান।

এসময় তিনি বলেন, আমার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে। আর আমি এ হত্যার বিচার চাই।