চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

পানিতে তলিয়ে গেছে নগরীর নিম্নাঞ্চল, চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-০৩ ১৩:২৮:৫২ || আপডেট: ২০১৮-০৭-০৩ ১৭:২৮:৩৩

টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের নিম্নাঞ্চল তলিয়ে যাওয়ায় রাঙামাটির সঙ্গে চট্টগ্রামের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। পাশা-পাশি বরাবরের মতোই নগরীর চকবাজার, হালিশহর, আগ্রাবাদ সিডিএসহ বিভিন্ন এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। সকাল থেকে স্কুল-কলেজ ও অফিসগামী যাত্রীদের পড়তে হয়েছে বেশি ভোগান্তিতে। টানা বৃষ্টিতে যান চলাচলও অনেক কম নগরীর বিভিন্ন সড়কে।

হাইওয়ে পুলিশ রাউজান থানার ওসি আব্দুল করিম জানান, টানা বৃষ্টিতে পাহাড়ি ঢলে রাউজানের বিভিন্ন স্থানে পানিতে রাস্তা তলিয়ে গেছে। এজন্য সকাল থেকে রাঙামাটির সাথে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।”

এদিকে,  মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে সৃষ্ট এই বৃষ্টিপাত আরও একদিন অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ আব্দুল হান্নান বলেন, সোমবার বেলা ১২টা থেকে মঙ্গলবার বেলা ১২টা পর্যন্ত ২৫২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

চকবাজার, কাপাসগোলা, বাকলিয়া, আগ্রবাদ সিডিএ আবাসিক, বেপারি পাড়াসহ অনেক স্থানেই হাঁটু সমান পানি জমে গেছে। একই সঙ্গে জোয়ারের পানি যোগ হয়ে বেড়েই চলেছে এলাকার পানি।

মঙ্গলবার সকালে সড়কে পানি থাকায় রিকশা ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা ছাড়া কোনো যানবাহন দেখা যায়নি। ওই সময় দুই-তিনগুণ ভাড়ার গুনে গন্তব্যে যেতে হয়েছে কর্মজীবীদের।বিদ্যালয়গুলোতে দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা থাকায় শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের সড়কের পানি ও বৃষ্টি উপেক্ষা করে ঘর থেকে বের হয়েছেন।

চকবাজার এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, সিডিএ আবাসিকের নিচতলার ভাড়া বাসায় ছিলাম। জোয়ার-ভাটার পানি থেকে বাঁচতে চকবাজার এলাকায় এসেছি। এখন এখানেও দেখছি নিচতলা বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠছে। পানির জন্য হাঁটাচলা দায় হয়ে পড়েছে।

উল্লেখ্য, ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে ফটিকছড়ি, রাউজান, পটিয়াসহ বিভিন্ন উপজেলার নিম্নাঞ্চলে বন্যা দেখা দিয়েছে।