চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

সিএমপি কমিশনারের হুশিয়ারি, এরপরেও চট্টগ্রামে যুবক খুন

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২৭ ১০:০৫:০২ || আপডেট: ২০১৮-০৬-২৭ ১২:৩৪:১৮

চট্টগ্রাম নগরের পাঁচলাইশ থানার আতুরারডিপো এলাকায় মঙ্গলবার (২৬ জুন) রাত ৯টার দিকে কথা কাটাকাটির জেরে বন্ধুর ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন সাইদুল ইসলাম ওরফে অনিক (২২) নামে এক যুবক। গুরুতর আহত সম্রাট (২১) নামে আরেক যুবক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (২৬ জুন) দুপুরে দামপাড়া পুলিশ লাইন্সের মাল্টিপারপাস শেডে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বলেন, হত্যার ব্যাপারে কোনো ছাড় নেই। কোনো হত্যাকারী রাজনৈতিক পরিচয়ে আমাদের কাছ থেকে ছাড় পাবে না। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিএমপি কমিশনার বলেন, বড়ভাই-ছোটভাই কোনো বিষয় না। হত্যাকাণ্ড আমাদের মেইন কনসার্ন। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত কোনো বড়ভাই-ছোটভাইও ছাড় পাবে না। সম্প্রতি সিএমপিতে কয়েকটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আমরা মোটামুটি সব আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।

এদিকে, ছুরিকাঘাতে নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আবদু্ল ওয়ারিশ বলেন, কথা কাটাকাটির জেরে আতুরারডিপো এলাকায় এক যুবক নিহত হয়েছেন। আহত আরেকজন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশের সূত্র। তবে আটকের ব্যাপারে মুখ খুলেননি পুলিশ কর্মকতা আবদুল ওয়ারিশ।

তিনি বলেন, ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।

স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, রাতে আতুরার ডিপুর ১৪ নম্বর গলিতে অনিকদের সঙ্গে কয়েকজন যুবকের কথা-কাটাকাটি হয়। ওই যুবকেরাও অনিক এবং সম্রাটের পূর্ব পরিচিত বলে পরিবারের দাবি। এক পর্যায়ে অনিক ও সম্রাটকে ছুরিকাঘাত করা হয় বলে অভিযোগ। সম্রাটের খালা পারভিন আক্তার হাসপাতালে অভিযোগ করেন, সানি ও তৈয়ব নামে দুই যুবকের সঙ্গে সম্রাট এবং অনিকের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে দুজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে সাইদুল মারা যায়।  সম্রাট চিকিৎসাধীন রয়েছেন।