চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

কুমিল্লার মামলায় খালেদার জামিনের আদেশ মঙ্গলবার

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২৫ ১২:৪১:২৭ || আপডেট: ২০১৮-০৬-২৫ ১৭:৪৯:০৪

নাশকতার অভিযোগে বিশেষ ক্ষমতা আইনে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে করা এক মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রাখা প্রশ্নে আদেশ দেয়া হবে মঙ্গলবার (২৬ জুন)। এ বিষয়ে শুনানি শেষে সোমবার (২৫ জুন) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ আদেশের জন্য এই দিন ধার্য করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ। খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী ও জয়নুল আবেদীন।

এই মামলায় গত ৩১ মে খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া ছয় মাসের জামিন আগামী ২৪ জুন পর্যন্ত স্থগিত করেছিলেন আপিল বিভাগ। এর মধ্যে রাষ্টপক্ষকে নিয়মিত লিভ টু আপিল করা নির্দেশ দেন আদালত। সে অনুযায়ী রাষ্ট্রপক্ষ ইতোমধ্যে নিয়মিত লিভ টু আপিল দায়েরও করেছে।

গত ২৮ মে বিচারপতি একেএম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জে বিএম হাসানের হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ কুমিল্লার দুই মামলায় খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দেন। পরদিন ২৯ মে দুপুরে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বার আদালত হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ স্থগিত করেন। একইসঙ্গে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। পরে ৩১ মে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ জামিন আদেশ ২৪ জুন পর্যন্ত স্থগিত করেন। এদিকে দুটি মামলার মধ্যে হত্যা মামলায় জামিন বহাল প্রশ্নে আদেশের জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে ২ জুলাই।

গত ২০ মে কুমিল্লার দুই মামলায় হাইকোর্টের অনুমতির পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে জামিন আবেদন দাখিল করা হয়।

২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের হায়দার পুলের চৌদ্দগ্রামে একটি কাভার্ড ভ্যানে অগ্নিসংযোগ ও আশপাশের বেশ কিছু গাড়ী ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় একই বছরের ২৫ জানুয়ারি চৌদ্দগ্রাম থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে নাশকতার অভিযোগে মামলা হয়। ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারিতে এই মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। খালেদা জিয়াসহ ৩২ জনকে এ মামলায় আসামি করা হয়। মামলাটি বর্তমানে কুমিল্লার বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ এ চলমান। ২০১৭ সালের ৯ অক্টোবর এ মামলায় অভিযোগ আমলে নেয় আদালত।