চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

সাতকানিয়ায় খাদ্যের সাথে বিষ খাইয়ে মেয়ের জামাতাকে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২৩ ২১:২৯:২০ || আপডেট: ২০১৮-০৬-২৪ ১৩:০১:১৫

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় শ্বশুরবাড়িতে এনামুল হক (৩০) নামের এক মেয়ের জামাতাকে খাদ্যের সাথে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার ভোরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি।

এর আগে গত মঙ্গলবার শ্বশুরবাড়ি থেকে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর জহিরুল ইসলাম বিষে আক্রান্ত হয়ে এনামের মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, হাসপাতালের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে গত ১৯ জুন রাত ৯টার দিকে এনামুলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাঁচ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ শনিবার ভোরে মারা গেছেন।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বিষক্রিয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে স্বজনদের কাছে এনামুল হকের লাশ হস্তান্তর করা হবে।

মৃত এনামুল হক সাতকানিয়ার আমির হোসেনের ছেলে।

এনামুল হকের বাবা আমির হোসেন জানান, ঈদের পর গত মঙ্গলবার এনাম শ্বশুরবাড়ি সাতকানিয়ার দোহাজারি বিসি মোড় আলী আক্কাসের বাড়িতে বেড়াতে যান।

তিনি জানান, সেখানে শরবত ও নাস্তা শেষে দুপুরের খাবার দেয় তাকে। খাবার খেয়েই এনাম বুকের জ্বালায় চটফট করতে থাকে। এ সময় নিজের অসুস্থতার কথা মোবাইল ফোনে তাকে (বাবা) জানায়।

আমির হোসেন জানান, মৃত্যুর আগে ছোট ছেলে এনাম খাদ্যের সাথে বিষ মিশানোর বিষয়টি বলে গেছে। ছেলে হত্যার বিচার দাবি করেছেন তিনি।

নিহত এনামুল হকের মা হালিমা খাতুন জানান, চার বছর আগে পারিবারিক ভাবেই বিয়ে হয় এনামের। বিয়ের কিছুদিন পরই ছেলেকে পৃথক করে দেয়া হয়। এর মধ্যে তাদের সংসারে এক ছেলের জন্ম হয়েছে। ওই ছেলের বয়সও তিন বছর বলে জানান তিনি। তার পরও কেন এই হত্যা। প্রশ্ন হালিমা খাতুনের।