চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮

শেষ মুহূর্তে ব্রাজিলের বাজিমাত

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২২ ২২:২৮:৪১ || আপডেট: ২০১৮-০৬-২৩ ০৯:১৩:৫৯

কোস্টারিকার বিপক্ষে ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে ব্রাজিল। ইনজুরি সময়ে ব্রাজিলের পক্ষে দুটি গোল করেন ফিলিপে কুতিনহো ও নেইমার। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় সেন্ট পিটারবার্গে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কোস্টারিকার মুখোমুখি হয় মুখোমুখি পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। গোলশূণ্য ভাবেই খেলা পূর্ণ সময় শেষ হবার মুহূর্তে ব্রাজিলের ফিলিপে কুতিনহো কোস্টারিকার জালে বল ঢুকিয়ে বাজিমাত করেছে। এরপর নেইমার আরেকটি গোল ঢুকিয়ে দেন।

নির্ধারিত সময়ও শেষ হয়েছে, কোনো গোল হয়নি। তবে ইনজুরি সময়ে গিয়ে আলোর মুখ দেখে তারা। শেষ পর্যন্ত তারা ২-০ গোলে হারিয়েছে কোস্টারিকাকে। সেন্ট পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ব্রাজিলের পক্ষে প্রথম সাফল্য এনে দেন ফিলিপে কুতিনহো। ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে বক্সে ঢুকে চমৎকার শটে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। পুরো ব্রাজিল শিবির উল্লাসে মেতে ওঠে। ইনজুরি সময়ের শেষ মিনিটে নেইমার দলকে দ্বিতীয় সাফল্য এনে দেন। ডগলাস কস্তার ক্রসে আলতো শটে দলের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন।

ম্যাচের প্রথম ৯০ মিনিটে কোনো গোল না পেলেও ব্রাজিল খেলেছে দুর্দান্ত। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অনেকগুলো আক্রমণ গড়ে কিন্তু কোস্টারিকার রক্ষণের দেয়াল ভাঙতে পারেনি। বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন দলটির গোলরক্ষক কেইলর নাভাস। দুই ম্যাচে এক ড্র এবং এক জয়ে ব্রাজিল ৪ পয়েন্ট নিয়ে নকআইট পর্বে ওঠার সম্ভাবনা দারুণভাবে জাগিয়ে তুলেছে।

ম্যাচের ৪৮ মিনিটে কুতিনহোর দুর্দান্ত শট গোললাইন থেকে সেভ করেন কোস্টারিকা গোলরক্ষক। ৫৭ মিনিটে সে কুতিনহোর বক্সের বাইরে থেকে আরো একটি চমৎকার প্লেসিং কোস্টারিকা গোলরক্ষক শুয়ে পড়ে রক্ষা করেন। অবশ্য শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল কোস্টারিকা। ১৩ মিনিটে ফ্রান্সিসকো কালভো চমৎকার প্লেসিং সাইডবার ঘেঁষে বাইরে চলে যায় বল।

ম্যাচে অবশ্য কোস্টারিকাও কাউন্টার অ্যাটাকে কয়েকটি আক্রমণ গড়ে ব্রাজিলের ভীত নাড়িয়ে দিয়েছে মাঝে মধ্যে। কিন্তু মেষ পর্যন্ত কোনো সাফল্য পায়নি। টানা দুই ম্যাচ হেরে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে তাদের। তারা আগের ম্যাচেও হেরেছিল, সার্বিয়ার কাছে ১-০ গোলে।

রাশিয়া বিশ্বকাপের ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে ত্রয়োদশ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার খুব সহজ সুযোগ নষ্ট হয় কোস্টারিকার। ডান দিক থেকে ক্রিস্তিয়ান গামবোয়ার কাটব্যাকে ডি-বক্স থেকে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন ফাঁকায় থাকা সেলসো বোর্হেস।

ব্রাজিলের প্রথম সুযোগটা পান নেইমার ২৭তম মিনিটে। ডি-বক্সে বল পেয়ে পিএসজির এই ফরোয়ার্ড নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার আগেই এগিয়ে এসে বাধা দেন গোলরক্ষক কেইলর নাভাস।

৪১তম মিনিটে দূরপাল্লার শটে চেষ্টা করেছিলেন মার্সেরো। নাভাসকে ফাঁকি দিতে পারেননি। অবশেষে গোলশূণ্য ভাবেই কেটেছে প্রথমার্ধ।

এদিকে বিশ্বকাপের আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে ব্রাজিল দলের অধিনায়ক ছিলেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস। কিন্তু রাশিয়া বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে মার্সেলোকে দলের অধিনায়ক ঘোষণা করেছিলেন তিতে। সে ম্যাচে ১-১ গোলে সমতা নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল।