চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

ছুটি শেষে অফিস খুলছে, ফিরছে মানুষ

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-১৮ ১০:২৬:০৬ || আপডেট: ২০১৮-০৬-১৯ ১০:০২:৪২

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে সরকারের নির্ধারিত ৩ দিনের ছুটি শেষ হয়েছে রবিবার। সোমবার থেকে খুলছে সব ধরনের সরকারি বেসরকারি ও স্বায়ত্বস্বাশিত প্রতিষ্ঠান। ইতিমধ্যে ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছে রাজধানীর কর্মজীবী মানুষ।

ঈদুল ফিতরের ছুটির আগে গত বৃহস্পতিবার ছিল শেষ অফিস। অফিস করেই অনেকে ওইদিনই পরিবারের সদস্যদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করার জন্য ছুটে গেছেন নিজ জেলায়, নিজ গ্রামে। এবার ঈদের ছুটি ছিল মোট তিনদিন। এরমধ্যে দু’দিনই পড়েছে সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্র ও শনিবারে। ঈদের ছুটি বলতে শুধু রবিবার একদিনই পেয়েছেন সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিরা।

বরাবরই ঈদুল ফিতরের ছুটি ঘোষণার সময় বাড়তি একদিন হাতে রেখে ঘোষণা করা হয়। এবারও ১৫ থেকে ১‌৭ জুন পর্যন্ত মোট তিনদিন ঈদের ছুটি ঘোষণা করা হয়। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে যদি ঈদ ১৬ জুন শনিবারের পরিবর্তে ১৭ জুন রবিবার অনুষ্ঠিত হতো তাহলে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিরা ১৮ জুন সোমবার বাড়তি আরো একদিন ঈদের ছুটি ভোগ করার সুযোগ পেতেন। কিন্তু তা হয় নি। শুক্রবার ঈদুল ফিতরের চাঁদ দেখা যাওয়ায় শনিবার দেশে ঈদ উদযাপিত হয়। ফলে রবিবারই শেষ হয় ঈদের ছুটি। আজ সোমবার থেকে যথারীতি খুলছে অফিস-আদালত।

অন্যদিকে সংক্ষিপ্ত ছূটি শেষেই ফিরতে হচ্ছে কর্মজীবী মানুষের। যারা ঈদের ছুটির সাথে অতিরিক্ত ছুটি পাননি তাদের আজকে অফিস হাজিরা দিতে হবে। সেই হিবেস ধরে অনেকেই ঢাকায় ফিরেছেন রবিবার রাতেই।

তবে বেশিরভাগই সোমবার সকালে ঢাকায় এসে অফিস করবেন। এদিনের যাত্রাও তুলনামুলক স্বস্তিদায়ক ছিল। সকালে ঢাকায় পেৌছানো বেশিরভাগ বাস, ট্রেন ও লঞ্চ এসেছে প্রায় ভর্তি। এর বেশিরভাগ যাত্রীই ছিল কর্মজীবী মানুষ।

রাজধানীর ব্যাংক ও অফিসপাড়ায় সব ধরনের প্রতিষ্ঠান খোলা হলেও নেই কর্মব্যস্ততা। আজ প্রথম দিনে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়েই শেষ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কাল মঙ্গলবার থেকেই আবার সরগরম হয়ে উঠবে অফিস আদালত।

এদিকে ঈদের ছুটি শেষে রাজধানীতে ফিরছে কর্ম ব্যাস্ত মানুষ। ঢাকার কমলাপুর রেল ষ্টেশন, গাবতলী, সায়েদাবাদ, মহাখালি বাসট্যান্ড এবং সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে ঢাকামুখী মানুষের ভীড় দেখা গেছে।