চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

শাহ আমানত সেতুতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-০৮ ১২:০৭:২৯ || আপডেট: ২০১৮-০৬-০৮ ২১:৪০:১৯

চট্টগ্রামের শাহ আমানত ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় একটি সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে জনপদে ঢুকে পড়ে। এতে দুই নারীসহ ৪ জন নিহত।

এ ঘটনা আরও অন্তত ১০ জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শুক্রবার (৮ জুন) বেলা সোয়া ১১টার দিকে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্র এই হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

প্রত্যাক্ষদর্শীরা জানান, সিমেন্ট বোঝাই ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অপেক্ষমাণ যানবাহন ও জনসাধারণকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ৩ জন। এছাড়া ১০ জন গুরুত্বর আহত হয়।

ঘটনার পর পরই পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় জনগণ উদ্ধার তৎপরতা চালায়। ঘাতক ট্রাকটি আটক করেছে পুলিশ।

উদ্ধারকারীদের মধ্যে আক্তার হোসেন জানান, নিয়ন্ত্রণ হারানো ট্রাকটি লোকালয়ে থাকা অটোরিক্সা ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও রিকশা দুমড়ে মুচড়ে যায়। এ সময় ওই সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও রিকশারোহী অন্তত ১৩ জন আহত হয়। সবাই উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

হাসপাতালের ডাক্তারা জানিয়েছেন তিনজন ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। বাকিদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

নিহতদের মধ্যে দুইজনের পরিচয় জানা গেছে। এর মধ্যে একজন শহীদুল ইসলামের স্ত্রী নারগিস আকতার (৩৫)। অপর নারী হাসিনা আকতার (৪০)। অজ্ঞাতপরিচয় পুরুষটির বয়স আনুমানিক ২৮ বছর।

আহতদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তাদের চিকিৎসা চলছে। আহতদের ১০ জনকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে আবদুস সাত্তার (৪০), ইমরান (৬), আবদুর রহমান (৪০), অনীল বড়ুয়া (৫০), শারমিন (২৩), রিগান (৩৩), সিফাত (১৬) ও দিদারের (৩০) পরিচয় মিলেছে।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক মো. আমির উদ্দিন জানান, বেলা সোয়া ১১টার দিকে নগরীর বাকলিয়া থানার শাহ আমানত সেতু (নতুন ব্রিজ) এলাকায় এনজিএস সিমেন্ট কোম্পানির একটি সিমেন্টবোঝাই ট্রাকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি অটোরিকশা, কয়েকটি রিকশা এবং রাস্তার পাশে অপেক্ষমাণ জনসাধারণকে চাপা দেয়। এতে এক নারীসহ কমপক্ষে তিনজন নিহত হন। আহত হয়েছেন ১০ জন। আহতদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পুলিশ ফাঁড়ির এসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মোট ১২ নারী-পুরুষকে হাসপাতালে নিয়ে আসে কিছু লোক। এদের মধ্যে তিনজনকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেছেন।