চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রামে ঈদে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-০১ ১৬:২৩:০৬ || আপডেট: ২০১৮-০৬-০১ ১৬:২৩:০৬

সুবর্ণ, তূর্ণা, গোধুলী, মেঘনা, মহানগর, সোনার বাংলা, পাহাড়িকা, উদয়ন ও বিজয়। ঈদে এসব ট্রেনে করেই যাওয়া হবে স্বজনদের কাছে। পূর্ব ঘোষণা দিয়ে শুক্রবার সকাল ৮টায় নয়টি আন্তঃনগর ও একটি এক্সপ্রেস (চট্টলা) ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে। এই টিকিটেই যেতে হবে আগামী ১০ জুন। সিডিউল অনুযায়ী বাকি দিনগুলোর টিকিট বিক্রি হবে একইভাবে।

তবে ঈদের একটু দূরের দিনগুলোর চেয়ে কয়েক দিন আগের টিকিট নিতেই যাত্রীরা ভিড় করেন বেশি। তবে এখনও ভিড় কম নেই, জানালেন স্টেশনে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা।

স্টেশন ম্যানেজার মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, ১০টি ট্রেন মিলে ১০ জুনের মোট টিকিট আছে ৬ হাজার ৯৩৭টি। এর মধ্যে কাউন্টারে পাওয়া যাবে ৪ হাজার ৯৭১টি। অনলাইনে বিক্রি হচ্ছে ২৫ শতাংশ। ৫ শতাংশ ভিআইপি এবং ৫ শতাংশ স্টাফ কোটা। বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত টিকিট বিক্রির কার্যক্রম চলবে। ১০ ও ১১ জুনের ট্রেনগুলোর জন্য টিকিটের চাপ কম থাকবে। বলেন স্টেশনের দায়িত্বে থাকা এই কর্মকর্তা।

ট্রেনের ধারণ ক্ষমতার বিষয়ে রেলের এই কর্মকর্তা বলেন, প্রতি বগিতে স্লিপার হলে ১৮টি, এসি চেয়ার হলে ৫৫টি এবং শোভন চেয়ার হলে ৬০ সিট থাকবে। ২ থেকে ৬ জুন পর্যন্ত যথাক্রমে ১১ থেকে ১৫ জুনে যাত্রার টিকিট বিক্রি হবে কাউন্টারে। একজন যাত্রী সর্বোচ্চ চারটি টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন। একজন যাত্রী একাধিক ট্রেনের ও ভিন্ন ভিন্ন শেণির টিকিট নিতে পারবেন না। অগ্রিম টিকিট ফেরত নেয়া হবে না।

তিনি বলেন, সুবর্ণ এক্সপ্রেস ও সোনার বাংলা ট্রেনে আসনবিহীন (দাঁড়ানো) টিকিট ইস্যু করা হবে না। আর অন্যসব ট্রেনে যাত্রার দিন যাত্রীর অনুরোধে আসনবিহীন টিকিট ইস্যু করা হবে। টিকেটের চাহিদার ওপর নির্ভর করে অতিরিক্ত বগি লাগানো হবে। তাও ১১ থেকে ৫ জুনের ট্রেনে।