চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮

চট্টগ্রামে স্বামী ফাঁস নিচ্ছেন, বসে দেখলেন স্ত্রী!

প্রকাশ: ২০১৮-০৫-১৩ ১৩:০২:১৭ || আপডেট: ২০১৮-০৫-১৩ ১৭:৩৫:৫৫

অভিমানী স্বামী আত্মহত্যা করবেন। এজন্য ঘরের ফ্যানের সঙ্গে দড়ি বাঁধছেন। এরপর সেই দড়ি নিজের গলায় নিয়ে ঝুলে পড়লেন। মুহূর্তেই তার মৃত্যু নিশ্চিত হলো। দড়ি বাঁধা থেকে মৃত্যুর গোটা সময়ে স্বামীর সামনে বসেই দেখলেন স্ত্রী। না, কোনো সিনেমা বা গল্প নয়। বাস্তবেই এমন ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা কলসির দীঘির পাড়ে।

গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে নগরের ইপিজেড থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মো. সালাউদ্দিনের (২০) ঝুলন্ত লাশটি উদ্ধার করেছে।এ সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্ত্রী রুনা আক্তার রুনুকে (১৮) আটক করেছে পুলিশ।

নিহত সালাউদ্দিন ভোলা সদর থানার বারু বাইল্লা গ্রামের কাজল হাওলাদারের ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা আয়াত উল্লাহ জানান, নগরের ইপিজেড থানার কলসিরদীঘির পাড়ে হাশেম ড্রাইভারের বাসায় ভাড়ায় থাকতেন পোশাক শ্রমিক সালাউদ্দিন ও তার স্ত্রী রুনা আক্তার। ভালোবেসে তিন মাস আগে তারা বিয়ে করেন।

এরপর সপ্তাহ না যেতেই সংসারে শুরু হয় দাম্পত্য কলহ। এভাবে বিগত তিন মাস তাদের মধ্যে ঝগড়া লেগেই ছিল। শনিবার সন্ধ্যায় সালাউদ্দিন বাসায় আসতেই শুরু হয় ঝগড়া। আর এতে অভিমান করে স্ত্রীর সামনেই গলায় ফাঁস নেন তিনি।

নগরের ইপিজেড থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজীব জানান, অভাব-অনটনের সংসার। অশান্তি ছিল। এরই জের ধরে স্ত্রীর সামনেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন সালাউদ্দিন।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রোববার সকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আর স্ত্রী রুনা আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।