চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২২ আগস্ট ২০১৮

‘বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে আড়াই লাখ রোহিঙ্গা বিদেশে গেছে’

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-২৮ ১৭:২৩:২৭ || আপডেট: ২০১৮-০৪-২৮ ১৭:২৩:২৭

বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে দুই থেকে আড়াই লাখ রোহিঙ্গা বিদেশে চলে গেছেন। জানালেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ওয়ার্ল্ড সামিট সিরিজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন মন্ত্রী।  ওয়ার্ল্ড কনফারেন্স সিরিজের অংশ হিসেবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সেন্টার ফর এনআরবি-নন রেসিডেন্ট বাংলাদেশি।

প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী বলেন, বিদেশে নানা অপরাধে জড়িয়ে বাংলাদেশের সুনাম নষ্ট করছে রোহিঙ্গা। তারা অর্থ উপার্জন করে মিয়ানমারে পাঠাচ্ছে। তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশে গেলে অনেকে বাংলাদেশি পরিচয়ে দেখা করতে আসে। কোথায় বাড়ি জিজ্ঞেস করলে জানা যায়, তারা রোহিঙ্গা।

নুরুল ইসলাম বলেন, রোহিঙ্গারা জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে তারা পাসপোর্ট তৈরি করে বিদেশে যাচ্ছে। গ্রাউন্ড লেভেলে এ সুযোগ আমরাই করে দিয়েছি। প্রবণতা অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। এটা চলতে দেয়া যায় না।

তিনি আরও বলেন, যারা বৈধ পথে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় পাঠাবে, তাদের প্রণোদনা দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। অর্থমন্ত্রী রাজি থাকলে এ প্রণোদনা চালু হবে। এতে বৈধ পথে আয় বাড়বে।

এদিকে বিদেশে দেশের সুনাম ধরে রাখার তাগিদ জানিয়ে, প্রবাসীদের পক্ষ থেকে আটটি দাবি তুলে ধরা হয় সামিটে। যার মধ্যে পাসপোর্ট নবায়ন, জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংককে আরও সক্রিয় ও বৈধ উপায়ে রেমিটেন্স পাঠানোর ব্যবস্থা, দেশে বিনিয়োগকারীদের ট্যাক্সভীতি দূর করা। দেশের বাইরে থাকা মেধাবীদের দেশে ফিরিয়ে এনে কাজে লাগাতে পারলে দেশের অর্থনীতি আরো সমৃদ্ধ হবে বলে সামিটে মত দেন বক্তারা।

সেন্টার ফর এনআরবি চেয়ারম্যান এমএস সেকিল চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান, শীর্ষ ব্যবসায়ীদের সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহা. রাজি হাসানসহ কয়েকজন প্রবাসী।