চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮

রুশ যুদ্ধজাহাজ সিরিয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-১৭ ১১:২৬:৩১ || আপডেট: ২০১৮-০৪-১৭ ১১:২৬:৩১

সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ কী সত্যি দুই বৃহত্তম শক্তিকে ফের যুদ্ধের আসরে নামিয়ে দেবে ? উঠে গেল এই প্রশ্ন। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবর, মার্কিন নৌবহরকে রুখতে ১১টি রুশ যুদ্ধজাহাজের গতিমুখ পরিবর্তন করল। ফলে তোলপাড় হতে শুরু করেছে ভূমধ্যসাগরের নীল জল। সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধের পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটন সরাসরি সেখানকার বিদ্রোহীদের পক্ষ নিয়েছে। আর সিরিয়া সরকারের পক্ষ নিয়ছে রাশিয়া। ইতিমধ্যেই রাশিয়ার দিকে মিসাইল হামলার হুমকি দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তারপরই ক্রেমলিনের নির্দেশে ভূমধ্যসাগরে তোলপাড় শুরু করল রুশ নৌবহর।

সিরিয়া ইস্যুতে ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে আন্তর্জাতিক মহল। রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের জন্য সিরিয়ার বিরুদ্ধে যেখানে যুক্তরাষ্ট্র এবং তার সহযোগী দেশগুলো সরব, সেখানে সিরিয়ার সরকার আমেরিকার পদক্ষেপের কড়া নিন্দা করেছে। অন্যদিকে, সিরিয়া ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে রাশিয়াও।

এরই মধ্যে কিছু রিপোর্টে জানানো হয়েছে, রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ সিরিয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, রোববার সিরিয়ার দিকে রাশিয়ার যুদ্ধ জাহাজকে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে। এতে ট্যাংক, মিলিটারি ট্রাক এবং অস্ত্রসহ নৌকাও রয়েছে বলে জানা গেছে।

সিরিয়ার এমন পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন জাতিসংঘও। আশঙ্কা করা হচ্ছে, উত্তর কোরিয়া রাসায়নিক অস্ত্র তৈরিতে ব্যবহার করা যায় এমন উপাদান সিরিয়ায় সরবরাহ করছে। উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘ নিষেধাজ্ঞা পালন করছে কিনা তার তদারকিতে থাকা কমিটি একটি বিশেষ রিপোর্ট তৈরি করেছে। সেই রিপোর্ট প্রকাশিত না হলেও, ফাঁস হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে মার্কিন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়া বেআইনিভাবে সিরিয়ায় উচ্চ-তাপসহ, অ্যাসিড প্রতিরোধক টাইলস, ক্ষয়প্রতিরোধক ভালভ ও থার্মোমিটার পাঠিয়েছে। সিরিয়ার সরকারি বাহিনী ক্লোরিন গ্যাস ব্যবহার করেছে এমন অভিযোগও উঠেছে।