চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

দরজায় কড়া নাড়ছে পহেলা বৈশাখ : চট্টগ্রামে চারুকলা ইনষ্টিটিউটে ব্যাপক প্রস্তুতি

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-০৬ ২১:৪৬:১০ || আপডেট: ২০১৮-০৪-০৭ ১১:৪৭:২৯

আখতার হোসাইন

দরজায় কড়া নাড়ছে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। এই উৎসবের বাকি আছে আর মাত্র ক’দিন। বাংলা নববর্ষকে বরণ করে নিতে জোর প্রস্তুতি চলছে নগরজুড়ে। তবে এর মূল আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে চট্টগ্রাম চারুকলা ইনষ্টিটিউটটে। নববর্ষের প্রথম প্রহরে চারুকলা ইনষ্টিটিউট থেকে বের হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা।

মূল ফটক দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতেই চোখে পড়ল কাজ চলছে পুরোদমে। শিক্ষার্থীরা ব্যস্ত যার যার ওপর অর্পিত কাজ নিয়ে। কেউ ছবি আঁকছেন, কেউ মুখোশ গড়ছেন, কেউ বা আবার হাঁড়ি-পাতিলের ওপর কারুকার্য তৈরি করছেন। সেগুলোই কিছুক্ষণ পর টাঙানো হচ্ছে দেয়ালে। চমৎকার এসব শিল্পকর্ম দেখেই মন ভরে যায়। চারুকলার শিক্ষার্থীরা এসব তৈরি করছেন মূলত বিক্রি ও মঙ্গলযাত্রার জন্য।

আজ বৃহস্পতিবার সরজমিন চারুকলার বর্ষবরণের প্রস্তুতি দেখতে গিয়ে দেখা গেছে, চারুকলা ইনষ্টিটিউটে আলোছায়া মায়াময় প্রাঙ্গণজুড়ে উচ্ছল, উজ্জ্বল তারুণ্যের প্রাণের ছোঁয়া। তাদের মুখরতায় চৈত্রের রৌদ্রস্নাত দুপুরটি হয়ে উঠেছিল অন্যরকম শিল্পময়। প্রতিবারের মতো এবারো মঙ্গল শোভাযাত্রার জন্য তৈরি হচ্ছে বাংলার লোকায়ত সংস্কৃতির প্রতিনিধিত্বকারী বিভিন্ন প্রতিকৃতি। গরমে ঘেমে নেয়ে উঠছেন একেকজন। তারপরও কারো পাশ ফিরে দেখার ফুরসত হচ্ছে না।

শিক্ষার্থীরা জানালেন, এবারে বরাদ্দ দেরী করে আসায় কদিন আগে কর্মযজ্ঞ শুরু করেছি। এখনো অনেক কিছু বাকী রয়েছে যেমন বাঘ, হাঁস, বিড়াল, শখের হাঁড়ি, শিশু হরিণ, পেঁচা, কাগুজে বাঘ, ছোট-বড়-মাঝারি আকৃতির তুহিন পাখিসহ দারুণ সব মোটিফের কাঠামো। তবে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি ১লা বৈশাখের আগেই যেন আমাদের সকল আয়োজন সম্পন্ন হয়। আশা করছি এবারও সুন্দর ভাবে মঙ্গলযাত্রাসহ বর্ষবরণ কার্যক্রম সুচারুরূপে সম্পন্ন করতে পারবো।