চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮

ফেসবুকে BFF গুজব!

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-২২ ১৮:৪৩:৩৭ || আপডেট: ২০১৮-০৩-২২ ১৮:৪৩:৩৭

ইংরেজি তিনটি অক্ষর বিএফএফ। বলা হচ্ছে, পোস্টের নিচের মন্তব্যের ঘরে এই অক্ষরগুলো লিখে যাচাই করা যাবে অ্যাকাউন্টটি নিরাপদ কিনা। অনুসন্ধানে দেখা গেছে যাচাইকরণের এই বিষয়টি পুরোই গুজব। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনো নির্দেশনা দেয়নি। একই সঙ্গে নিরাপদ নয় এমন অ্যাকউন্টকেও অনেক ক্ষেত্রে নিরাপদ দেখাচ্ছে।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এ সংক্রান্ত গুজবে বলা হচ্ছে- ‘আপনি ইংরেজি বড় হরফে BFF টাইপ করুন। আপনার ফেসবুক যদি হ্যাক না হয়, তাহলে BFF সবুজ রংয়ের হয়ে যাবে। যাদের BFF লেখাটি সবুজ হচ্ছে না, তারা অতি শীঘ্রই পাসওয়ার্ড বদলে ফেলুন। আর BFF লেখাটিতে আঙ্গুলের হালকা চাপ লাগালে তা’ দু’টো হাতের তালু বাঁকিয়ে বাঁকিয়ে অনেকটা সাপের মতো হয়ে উপরের দিকে উঠে যায় কিনা তা’ও পরখ করে দেখে নিতে পারেন।’

ইংরেজিতেও ছড়ানো হচ্ছে একই ধরনের বার্তা। এক ফেসবুক ব্যবহারকারীর ওয়াল থেকে নেয়া হয়েছে নিচের কয়েকটি লাইন–

‘Mark Zuckerberg, CEO of Facebook, invented the word BFF. To make sure your account is safe on Facebook, type BFF in a comment. If it appears green, your account is protected. If it does not appear in green, change your password immediately because it may be hacked by someone.
Lets do it try it !!!”

নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও অনুসন্ধানে দেখা গেছে, বাস্তবে এই বার্তাটি গুজব। BFF লেখার সাথে ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়া বা পাসওয়ার্ড চুরি হওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গের ছবি ব্যবহার করে অনেকে বার্তাটি ছড়ালেও জুকারবার্গ বা ফেসবুকের পক্ষ থেকে এমন কোনো বার্তা কোথাও প্রকাশ করা হয়নি।

মূলত, ফেসবুক কিছু বিভিন্ন ভাষায় নির্দিষ্ট শব্দ বা শব্দ সংক্ষেপকে (Keyword) বিশেষ মর্যাদা দিয়ে নির্দিষ্ট যে শব্দগুলো প্রকাশ করেছে এই BFF তারই একটি। ফেসবুকের কোনো পোস্ট বা কমেন্টে টাইপ করলে ইংরেজিতে congratulations বা congrats এবং বাংলায় ‘অভিনন্দন’ ‘শুভেচ্ছা’ ইত্যাদি শব্দ লিখলে যেমনটা অ্যানিমেশন হয়, রঙ বদল হয়, এটাও তেমনি একটি বিষয়।

প্রসঙ্গ, BFF এর পূর্ণরূপ হচ্ছে Best Friend Forever. কথ্য ইংরেজিতে শব্দটি বেশ প্রচলিত। BFF লিখে পোস্ট করলে ফেসবুক ‘সবুজ’ রঙের একটি ‘এনিমেশন’ হয়। তাই এই গুজব নিয়ে আতঙ্কেরও কিছু নেই। তবে এ ধরনের গুজবে কান দিতে গিয়ে ফাঁদে পড়ার ঝুঁকিটাও অমূলক নয়।