চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পুড়িয়ে দেয়া হলো হাটহাজারী মাদরাসা ছাত্রদের ৫ শতাধিক স্মার্টফোন

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০৬ ০০:২৫:০০ || আপডেট: ২০১৮-০৩-০৬ ০০:২৫:০০

চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জব্দ করা পাঁচ শতাধিক স্মার্টফোন পুড়িয়ে দিয়েছে মাদরাসা কর্তপক্ষ। মাদরাসায় স্মার্টফোন নিষিদ্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোবাইলগুলো জব্দ করা হয়েছিল।

হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা শাহ্ আহমদ শফির আল জামিয়াতুল আহলিয়া রুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসায় রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

মাদরাসা সূত্রে জানা যায়, ৩ থেকে ৪ দিন আগে মোবাইল ব্যবহার করা নিয়ে এক ছাত্রের সঙ্গে মাদরাসার এক শিক্ষকের হট্টগোল হয়। এ নিয়ে শিক্ষকরা ক্ষুব্ধ হন। তাই মাদরাসা কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ছাত্রদের কক্ষে চলে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়। তল্লাশি চালিয়ে প্রায় পাঁচ শতাধিক (দুই বস্তা) স্মার্টফোন জব্দ করা হয়। পরে রোববার রাতে মাদরাসা কম্পাউন্ডের ভেতরে পেট্রল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে জব্দকৃত মোবাইলগুলো ধ্বংস করা হয়।

এ বিষয়ে মাদরাসার আবাসিক ছাত্রদের কক্ষের জিম্মাদার (প্রক্টর) ও সিনিয়র শিক্ষক মুফতি জসিম উদ্দিন মুঠোফোনে ছাত্র-শিক্ষকের হট্টগোলের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, মাদরাসার ছাত্রদের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ব্যবহার করা সর্ম্পূণ নিষিদ্ধ। যে সকল শিক্ষার্থী গোপনে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সেট ব্যবহার করে তাদের মোবাইল এভাবে জব্দ করে ধ্বংস করা হয়। এটা মাদরাসার বহু দিনের রেওয়াজ।

এদিকে এ ঘটনার পর ফেসবুকে মোবাইল সেট পোড়ানোর ছবি দিয়ে এক মাদরাসা ছাত্র লিখেছেন, শোক সংবাদ…. দুই বস্তা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সৎকার সম্পন্ন। হাটহাজারী মাদরাসায় ছাত্রদের কাছ থেকে জব্দকৃত মোবাইল (প্রায় দুই বস্তা) পেট্রল ঢেলে আগুনের মাধ্যমে সৎকার করা হয়। মোবাইল কোম্পানিরা মেজবানের ব্যবস্থা করুন।