চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

জাফর ইকবালের উপর হামলাঃ চবি সাংবাদিক সমিতির মানববন্ধন

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০৫ ১৩:৫৩:৪৪ || আপডেট: ২০১৮-০৩-০৫ ১৫:৩১:১৪

চবি প্রতিনিধি 

বিশিষ্ট লেখক ও কলামিস্ট,শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জাফর ইকবালের উপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি(চবিসাস) ও কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।উক্ত মানববন্ধনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বরে দুপুর ১২ টা ২০ মিনিটে শুরু হয়।বক্তারা হামলার পিছনে ইন্ধনদাতাদের শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জোর দাবি জানান।

চবিসাস এর সভাপতি আাসহাবুর রহমান শোয়েব বলেন, এই হামলা পূর্বপরিকল্পিত।জাফর ইকবাল স্যারের পাশে পুলিশ থাকা সত্ত্বেও তিনি হামলার শিকার হয়েছেন।এই হামলার সাথে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কোন হাত আছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে।অপরাধী যে দল বা মতের হোক না কেন তাদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসুন।

দর্শন বিভাগের শিক্ষক মাসুম আহমেদ বলেন,স্বাধীনতার আদর্শ ধারণকারী,উঁচুমার্গের শিক্ষকের উপর যখন হামলা হয় তখন আমরা সাধারণ শিক্ষকরা বিপন্নতা বোধ করি।অর্থনৈতিক,কৃষিক্ষেত্রে উন্নয়ন হলেও এখনো আদর্শগত উন্নয়ন গড়ে উঠছেনা।বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আদর্শ ও মুক্তবুদ্ধির চর্চার সুযোগ দিতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, জাফর ইকবাল শুধু একজন ব্যক্তি নন,তিনি একটি প্রতিষ্ঠান।আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বে কোন অবহেলা ছিল কেন তা খতিয়ে দেখার আহবান জানান তিনি।

চবিসাস এর সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান এর সঞ্চালনায় এবং আসহাবুর রহমান শোয়েব এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরো বক্তৃতা রাখেন কলা অনুষদের ডিন সেকান্দার চৌধুরী,চবিসাস এর প্রচার সম্পাদক বায়েজিদ ইমন,সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট(চীনপন্হি) এর আইরিন সুলতানা, ছাত্রফ্রন্ট(মার্ক্সবাদী) এর আহ্বায়ক ফজলে রাব্বি।

উল্লেখ্য,শনিবার(৩ মার্চ) বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠান চলাকালে ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবালকে পেছন থেকে মাথায় ছুরিকাঘাত করে ফয়জুর রহমান ফয়জুল(২৫) নামের এক তরুণ।এরপর জাফর ইকবালকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।সেখানে অস্ত্রোপাচার শেষে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়।রাত ১১ টা ৫৮ মিনিটে তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাাপাতালে ভর্তি করা হয়।বর্তমানে তিনি শঙ্কামুক্ত।