চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮

ভয় পেলেন রিজভী!

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০১ ১৮:৫২:৫২ || আপডেট: ২০১৮-০৩-০১ ১৮:৫২:৫২

নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ফুটপাতে দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে লিফলেট বিতরণ করছিলেন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তবে পুলিশ দেখে তিনি দ্রুত কার্যালয়ে ঢুকে যান।দ্রুত অফিসে ঢুকে পড়ার ব্যাপারে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তিনি এসব কথা বলেন।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকালে ফুটপাতে কয়েকজন পথচারী এবং রিকশাওয়ালার মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন রিজভী।

কার্যালয়ে প্রবেশের বিষয়ে জানতে চাইলে রিজভী বলেন, ‘অবশ্যই শঙ্কার মধ্যে আছি। আপনারা দেখেছেন কয়েক দিন আগে সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যিনি একজন সাবেক এমপি, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব, অফিস থেকে রের হওয়ার পর তাকে ঘাড়মোচড় করে কীভাবে নিয়ে গেছে সবাই দেখে। ভীতি ও আতঙ্কের মধ্যে আমাদেরকে কাজ করতে হচ্ছে।’

রিজভী বলেন, ‘আমাদের নেত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আজকে সারাদেশে বিএনপির বক্তব্য সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করছি। বিএনপি কেন দেশনেত্রীর মুক্তির দাবি করছে, কী অন্যায় তার প্রতি করা হয়েছে সেই বক্তব্য আমরা লিফলেটের মাধ্যমে জনগণকে জানাচ্ছি।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘এই লিফলেট বিতরণ কর্মসূচি ঢাকাসহ সারাদেশে চলবে। আমাদের জাতীয় নেতার এটার সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত থাকবেন এবং সারাদেশে নেতা-কর্মীরা এই লিফলেট বিতরণ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন। তারা মানুষের কাছে এটি দেবেন। মানুষ এটি পড়ে জানবে কত অন্যায়ভাবে দেশনেত্রীকে সরকারের একটা ক্রোধের মনোবৃত্তি নিয়ে তাকে জরাজীর্ণ পরিত্যক্ত কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে।’

রিজভী বলেন, ‘আমাদের চেয়ারপারসনের মুক্তির আন্দোলন অব্যাহত থাকবে, আমাদের আন্দোলন চলবে। শান্তিপূর্ণ থেকে আন্দোলন তীব্র করে বর্তমান সরকারের পতন ঘটানো হবে।’

সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘তারা (সরকার) গায়ের জোরে বিচারিক প্রশাসনকে কবজা করে বিরোধী দলের নিশ্চিহ্ন করার প্রক্রিয়া চালালে জনতাকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি তা রুখে দাঁড়াববে। এর অংশ হিসেবেই এই কর্মসূচি শুরু করেছে বিএনপি।’

এ সময়ে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহমেদ, আমিনুল ইসলাম, জিসাস সভাপতি আবুল হাশেম রানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।