চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

চসিকের সিদ্ধান্ত, ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে হর্ন নিষিদ্ধ

প্রকাশ: ২০১৮-০২-২০ ২১:৪৪:৫১ || আপডেট: ২০১৮-০২-২১ ০০:৫৮:৪৫

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে হর্ন বা হুটার বাজানো নিষিদ্ধ করেছে। আজ দুপুরে চসিকের কেবি আবদুস সাত্তার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। চসিক মেয়র আ জ ম নাছির ‍উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় কাউন্সিলর সংরক্ষিত কাউন্সিল, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, সচিবসহ বিভাগীয় প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

চসিক মেয়র বলেন, ‘নগরীর সব ধরণের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মন্দির, মসজিদ, প্যাগোডা, গীর্জার সামনে দিয়ে যাতায়াতের সময় কোনো গাড়ি হর্ন বা হুটার বাজাতে পারবে না। কারণ আজান দেওয়ার সময় বা উপাসনার সময় গাড়ির হর্ন মুসল্লীদের মনোযোগে বিঘ্ন ঘটায়। তাছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাস চলাকালীন হর্নের বিকট আওয়াজে শিক্ষার্থীদের মনোযোগ নষ্ট হয়। তাই নগরে শব্দ দূষণ কমাতে চসিক আগামী এক মাসের মধ্যে সকল ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে হর্ন না বাজানোর ট্রাফিক নির্দেশনা সম্বলিত সাইনবোর্ড লাগানো হবে।’

তিনি বলেন, ‘চসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাসিক বেতন ব্যয় প্রায় ২০ কোটি টাকা। এর সঙ্গে আছে প্রশাসনিক ব্যয়সহ নানা খরচ। অথচ আমাদের রাজস্ব আদায় এখনো কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি। এ ক্ষেত্রে আয়বর্ধক প্রকল্প সক্রিয়করণ এবং প্রশাসনিক ব্যয় হ্রাসমূলক পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমাদের কার্যকর পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।’

চসিক মেয়র বলেন, ‘বর্তমানে নগরে সৌন্দর্যবর্ধন কাজ চলমান। এ কাজ শতভাগ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে নগরীর ৪১ ওয়ার্ডের কাউন্সিলরবৃন্দ প্রয়োজনীয় স্থান নির্বাচন করবেন। কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণে নির্বাচিত এলাকাসমূহে বিউটিফিকেশন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। আমরা চাই এই নগর হোক ক্লিন ও গ্রিন সিটি।’