চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বুধবারের পর যে কোন দিন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৩ ১৫:৫৫:২৬ || আপডেট: ২০১৮-০২-১৩ ১৫:৫৫:২৬

বুধবার খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের সার্টিফাইড কপি পাওয়ার পর জামিন আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া। পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

এর আগে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩ মামলায় ওকালতনামায় সই নিতে সকালে কারা ফটকে যান অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়াসহ ৪ আইনজীবী। জেল কর্তৃপক্ষ ওকালতনামার কপি গ্রহণ করেছে।

আইনজীবীরা ওকালাতনামায় সই নিতে বেগম খালেদা জিয়ার সাক্ষাতের আবেদন করেন। তখন ওকালতনামায় বেগম জিয়ার সই করিয়ে রাখবেন বলে জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। পরে কোন এক সময়ে আইনজীবীদের ওকালতনামা সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বাসে পেট্রোলবোমা হামলায় ৮ জন নিহতের ঘটনায় দায়ের নাশকতার মামলা, গ্যাটকো দুর্নীতি মামলা এবং বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি মামলার জন্য ওকালতনামায় সই নিতে কারা ফটকে যান আইনজীবীরা।

সোমবার কুমিল্লা আদালতের মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের মিয়াবাজার সংলগ্ন জগমোহনপুর এলাকায় বাসে পেট্রলবোমা নিক্ষেপের ওই মামলায় গত ২ জানুয়ারি খালেদা জিয়াসহ ৪৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া। ওইদিন জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। এছাড়াও দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ মামলার অন্য চার অাসামীকে বিএনপির সাবেক সাংসদ কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগনে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তাছাড়াও আত্মসাৎ করা ২ কোটি, ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা খালেদা জিয়া বাদে অন্য অাসামীদের জরিমানা করেছেন আদালত।