চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮

প্রশ্ন ফাঁস: গ্রেপ্তার ১৪

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১১ ০৯:৫৯:৪৮ || আপডেট: ২০১৮-০২-১১ ১০:৫৪:৫৬

চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রাজধানী থেকে ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। মুঠোফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে চক্রটি জড়িত বলে জানা গেছে।

রবিবার সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) পাঠানো এক ক্ষুদেবার্তায় জানানো হয়, ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগ উত্তরের একটি দল রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে। তাদের নাম-পরিচয় জানায়নি পুলিশ।

বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানাবে গোয়েন্দা পুলিশ।

গত কয়েক বছর ধরেই প্রশ্ন ফাঁস একটি আলোচিত বিষয়। নানা প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেয়ার পরও সামাজিক মাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁস ঠেকানো যাচ্ছে না। অভিযোগ আছে ট্রেজারি থেকে প্রশ্ন কেন্দ্রে পাঠানোর সময় বা কেন্দ্র থেকেও ফাঁস হয় প্রশ্ন। আর এতে শিক্ষকদের একাংশের জড়িত থাকার অভিযোগও করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিন ১ ফেব্রুয়ারি বাংলা প্রথম পত্রের প্রশ্ন ফেসবুকে এসেছে পরীক্ষা শুরুর ২৪ মিনিট আগে। ৩ ফেব্রুয়ারি বাংলা দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্ন এসেছে পরীক্ষা শুরুর পৌনে এক ঘণ্টা আগে। এভাবে এখন পর্যন্ত হওয়া প্রায় প্রতিটি প্রশ্নই পরীক্ষার আগে ফাঁস হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

প্রশ্ন ফাঁস বিষয়ে ইতোমধ্যে একটি তদন্ত কমিটি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি প্রশ্ন ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিতে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়। তবে কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না এই প্রবণতা।

শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, সরকারের বদনাম করতে এই কাজটি করছে একটি চক্র। এর পেছনে রাজনৈতিক কারণ জড়িত বলেও অভিযোগ তার।

প্রশ্ন ফাঁসকারী এই চক্রকে ঠেকাতে কঠোর হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও। গত কয়েক দিনের দেশের বিভিন্ন স্থানে শিক্ষক, কর্মকর্তা, পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবককে এই অভিযোগে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলাও হয়েছে বিভিন্ন স্থানে।