চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮

অসহায় আত্মসমর্পণ

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১০ ১৩:২৯:৫৪ || আপডেট: ২০১৮-০২-১০ ১৩:২৯:৫৪

লেজেগোবরে ব্যাটিং। বোলিং তুলনামূলক ভালো। তবে যথেষ্ট নয়। ফিল্ডিংয়েও সেই পুরনো চেহারা। দ্বিতীয় টেস্টে এমন প্রদর্শনীতে শনিবার বাংলাদেশ শুধু ২১৫ রানে হারেনি, ১-০ ব্যবধানে সিরিজ খুইয়েছে আর নাকানিচুবানি খেয়ে প্রতিপক্ষের কাছে করেছে মাথা নিচু।

শ্রীলঙ্কা আগে ব্যাট করে ২২২ রান করেছিল। জবাবে বাংলাদেশ ১১০ রানে গুটিয়ে যায়। বাংলাদেশ মূলত নিজেদের কবর খুঁড়েছিল এই ইনিংসে। তৃতীয়দিন দুপুর গড়িয়ে বিকেল আসতে আসতে সেই কবরে সমাধিস্থ!

প্রথম ৪৩ রানে গিয়েছিল চার উইকেট। আর দ্বিতীয়দিন শেষ পাঁচ উইকেট পড়ে পাঁচ রানে। অর্থাৎ নয়জনে মিলে করেন ৪৮ রান!

দ্বিতীয় ইনিংসেও প্রায় একই অবস্থা। প্রতিপক্ষ ২২৬ রানে অলআউট হয়। তাতে টার্গেট দাঁড়ায় ৩৩৯। ৭৮ রান তুলতে ফিরে যান তামিম (২), ইমরুল (১৭), মুমিনুল (৩৩) এবং লিটন (১২)।

এরপর রিয়াদকে নিয়ে মুশফিক জুটি গড়ার চেষ্টা করেন। অবশেষে সেই রিয়াদ (৬) ফেরেন দলীয় শতরানের মাথায়। দুজনে ২২টি রান যোগ করেন।

এই ম্যাচ জিততে হলে বাংলাদেশকে রেকর্ড গড়তে হতো। এই মাঠে ২০৯ রানের বেশি তাড়া করে জেতার নজির নেই। সব মিলিয়ে বাংলাদেশও কোনোদিন টেস্টে এত রান তাড়া করে জিততে পারেনি। এর আগে একবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে ২১৭ রান তাড়া করে জিতেছিল মুশফিকরা।

এমন অসম্ভবের পথে হাঁটতে গিয়ে অভিজ্ঞ মুশফিক চাপ কমাতে মরিয়া হয়ে ওঠেন। কয়েকবার রিভার্স-সুইপ করতে দেখা যায় তাকে! ইমরুলও তুলে-তুলে মারতে থাকেন। উড়িয়ে মারা যার খেলা সেই সাব্বির ফেরেন এক রানে। বাকিদের কথা না বলাই ভালো।

অভিষিক্ত ২৪ বছর বয়সী স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়া দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়েছেন। প্রথম ইনিংসে নিয়েছিলেন তিনটি। হেরাথ ফিরিয়েছেন চারজনকে।