চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

টার্গেট ৩৩৯, শুরুতেই সাজঘরে তামিম

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১০ ১০:০৮:০৯ || আপডেট: ২০১৮-০২-১০ ১০:৫৬:০৬

সিরিজ জয়ে শ্রীলঙ্কার দেয়া ৩৩৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খেলো বাংলাদেশ। দলীয় ৩ ও ব্যক্তিগত ২ রানের মাথায় দিলরুয়ান পেরেরার বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফিরে গেছেন ওপেনার তামিম ইকবাল।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ১ উইকেটে ১৬ রান করেছে বাংলাদেশ। ইমরুল কায়েস (০) ও মুমিনুল হক ১৩ রানে ক্রিজে রয়েছেন।

এর আগে সিরিজ নির্ধারণী দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের তৃতীয় দিন শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) প্রথম সেশনেই শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় ইনিংসের শেষ দুটি উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ। এ ম্যাচ জিতলে সিরিজ নিজেদের করে নেওয়ার সুযোগ থাকবে টাইগারদের।

তৃতীয় দিন ব্যাটিংয়ে নেমে শেষ দুই উইকেটে আরও ২৬ রান যোগ করে লঙ্কানরা। যেখানে দলীয় ২২৬ রানে সবকটি উইকেট হারায় সফরকারীরা। তবে তাইজুল ইসলামের পর পর দুই বলে ফিরে যান ২১ রান করা সুরাঙ্গা লাকমাল ও শূন্য রানে থাকা রঙ্গনা হেরাথ। ৭০ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন রোশেন সিলভা। তাইজুল সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নেন।

শনিবার সকালে কঠিন পথ পাড়ি দেওয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়ে ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনে মাঠে নামে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে টাইগার ব্যাটসম্যানদের কেউই নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি।

ফলে ১১২ রানের লিড নিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে শ্রীলঙ্ক। পরে ৮ উইকেটে ২০০ রান করে লঙ্কাবাহিনী টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষ করে। অর্থ্যাৎ ২ উইকেট হাতে রেখে এখনও ৩১২ রানে এগিয়ে লঙ্কানরা।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৩০০ রান পার করে জেতা প্রায় অসম্ভব। তবুও জয়ের আশা দেখতে বাংলাদেশ।

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসা মেহেদী হাসান মিরাজ তবুও হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করলেন। এমনকি এ টেস্ট ম্যাচ জিতে চান বলে জানান তিনি।

এ প্রসঙ্গে ডানহাতি এ অলরাউন্ডার বলেন,‘আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে, কারণ সকালে দ্রুত উইকেট তুলে নেয়ার পর ওরা যে রান করুক, সেটা তাড়া করতে হবে।’

যে দলের প্রথম ইনিংসে ১০০ করাই টানাটানি, তারা কঠিন এই পথটা পাড়ি দিতে পারবে? তাছাড়া ১৭ বছরের টেস্ট ইতিহাসে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ২১৫ রান তাড়া করার রেকর্ড আছে। দেশের মাটিতে সেটি মাত্র ১০১। সেখানে ৩০০ রানের বেশি তাড়া করে জেতার আত্মবিশ্বাস মিরাজ পাচ্ছেন কোথায়! তরুণ স্পিন-অলরাউন্ডারকে আশা দিচ্ছে গত বছর শ্রীলঙ্কা সফরে।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন,‘ শ্রীলঙ্কার মাটিতে (গত মার্চে) আমরা টেস্ট জিতেছিলাম প্রায় ২০০ (১৯১) তাড়া করে। শ্রীলঙ্কার মাটিতে যদি ২০০ তাড়া করতে পারি, দেশের মাটিতে ৩০০ তাড়া করে জেতা অসম্ভব নয়। সেই আত্মবিশ্বাস আমাদের আছে। সিনিয়র খেলোয়াড়েরা নিশ্চয়ই দায়িত্ব নেবে এবং ভালো খেলবে। নিজেরাও জানে তারা ভালো করলে দল ভালো ফল করবে।’

ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের চরম ব্যাটিং ব্যর্থতার মধ্যে ব্যতিক্রম ছিলেন মিরাজ। অপরাজিত ছিলেন ৩৮ রানে। নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বলছিলেন, মিরপুরের উইকেটে সফল হওয়ার উপায়।

এ বিষয়ে তিনি বলেন,‘গড়পড়তার উইকেটের চেয়ে এখানে বেশি মনোযোগ দিয়ে খেলতে হবে। এই উইকেটে মনোযোগ একটু এদিক-সেদিক হলে বাঁচার কোনো সুযোগ থাকে না। আমাদের ব্যাটসম্যানরা পূর্ণ মনোযোগ ধরে রেখে খেলতে পারলে ভালো কিছু আশা করা সম্ভব।’

ম্যাচে শ্রীলঙ্কার এগিয়ে রয়েছে উল্লেখ করে শ্রীলঙ্কার তরুণ ব্যাটসম্যান রোশেন সিলভা বলেন,‘ আমার মনে হয় না, এই উইকেটে ৩০০ রান করা সম্ভব। যথেষ্ট হয়ে গেছে আমাদের। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরাও জানে এই উইকেটে কাজটা কঠিন। আমাদের স্পিন আক্রমণ তুলনামূলকভাবে বেশি অভিজ্ঞ। হেরাথের চারশর বেশি টেস্ট উইকেট আছে, দিলরুয়ান পেরেরার প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৭০০ উইকেট আছে। আমরা ম্যাচ জয়ের জন্য খুব ভালে অবস্থানেই আছি।’