চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ক্রেতা-দর্শক নেই চট্টগ্রামের রিহ্যাবের আবাসন মেলায়

প্রকাশ: ২০১৮-০২-০৮ ২১:১১:১৪ || আপডেট: ২০১৮-০২-০৯ ১৫:২৪:০২

সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক

ক্রেতা-দর্শক শূন্য ছিল নগরীর রেডিসন ব্লুতে বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) শুরু হওয়া চার দিনব্যাপী আবাসন মেলা। উদ্বোধন শেষে দুপুর দুইটায় যথারীতি মেলার কার্যক্রম শুরু হয়। অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন স্টল যথারীতি খুললেও বিকেল পর্যন্ত চোখে পড়ার মতো কোনো দর্শনার্থী দেখা যায়নি।

মেলায় বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তা কর্মচারীরা বসে গল্প করে অলস সময় পার করছেন। ক্রেতা দর্শনার্থী না থাকায় সবার মধ্যেই হতাশার চাপ দেখা গেছে।
স্টলের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রথমদিন এমনিতেই ক্রেতা-দর্শনার্থী কম আসেন। তবে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ঘিরে আতংক সৃষ্টি হওয়ায় মেলায় ক্রেতা দর্শনার্থীর সমাগম নাই বললেই চলে।

মেলায় অংশ নেয়া জুমেরাহ হোল্ডিং লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ অফিসার শফিকুল ইসলাম নয়ন বলেন, আজ মেলার প্রথমদিন। স্বাভাবিক ক্রেতা-দর্শনার্থী কম থাকবে। তবে শুক্রবার থেকে ক্রেতা-দর্শনার্থী আসতে পারেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

আয়োজক সংগঠন রিহ্যাব চট্টগ্রামের জনসংযোগ কর্মকর্তা এএসএম আবদুল গাফফার মিয়াজ সিটিজি টাইমসকে বলেন, শুরু দিন এমনিতে ক্রেতা দর্শনার্থী কম থাকে।

‘রাজনীতির পরিবশে খারাপ ছিল। তবে শুক্রবার ছুটির দিন আছে। আশাকরি ওইদিন ক্রেতা-দর্শনার্থী বাড়বে।’

মেলায় ডেভেলপার কোম্পানির স্টলে অ্যাপার্টমেন্ট ক্রেতার সংখ্যা তেমন না হলেও বিভিন্ন ফিটিংস কোম্পানির স্টলে অল্প কিছু বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও বিল্ডিং মেটারিয়াল কোম্পানির স্টলেও বিভিন্ন ধরণের ফিটিংস, সিমেন্ট প্রভৃতি বিক্রি হচ্ছে ।

আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সকাল ১০টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত প্রতিদিন চলবে আবাসন খাতের এ মেলা। রিহ্যাব ২০০১ সাল থেকে মেলার আয়োজন করে থাকে। চট্টগ্রামে এটি তাদের এগারতম আয়োজন।

চার দিনব্যাপী মেলায় প্রবেশের জন্য দুই ধরনের টিকিট থাকছে। ৫০ টাকা দামের সিঙ্গেল টিকেটে একবার ও ১০০ টাকা দামের মাল্টিপল টিকেটে চারবার প্রবেশ করা যাবে। প্রতিদিন টিকিটের ওপর লটারির মাধ্যমে দেওয়া হবে আকর্ষণীয় পুরস্কার।

এছাড়াও শুক্রবার (৯ ফ্রেব্রুয়ারি) সকাল নয়টায় মেলা প্রাঙ্গনে শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান।