চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮

সংলাপের প্রয়োজন নেই: কাদের

প্রকাশ: ২০১৮-০১-২১ ১৪:৩৮:৪০ || আপডেট: ২০১৮-০১-২১ ১৪:৩৮:৪০

‘নির্বাচন ইস্যুতে সংলাপের প্রয়োজন নেই’ বলে আবারো মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এর আগে গত শুক্রবার একই কথা বলেন তিনি।

রবিবার তিনি রাজধানীতে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। সম্প্রতি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটি প্রসঙ্গে কাদের বলেন, এটা বাতিল বা স্থগিত কোনোটাই হয়নি। কমিটি যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া চলছে। এই নিয়ে হতাশার কিছু নেই। গণমাধ্যমে যা এসেছে তা সঠিক হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, গত নির্বাচনে বিএনপিকে নির্বাচনকালীন সরকারে আসার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তারা আসেনি। গত সংসদে তাদের প্রতিনিধি ছিল। আগে দেখি এবার তারা দাবি জানায় কি না।

সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের সময় সরকার নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করবে। এটাই স্বাভাবিক নিয়ম। নির্বাচন ইস্যু নিয়ে বিএনপির সঙ্গে সংলাপের কোনো প্রয়োজন দেখছি না।

এর আগে নির্বাচন নিয়ে বিএনপি’র সাথে সংলাপের কোন প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার তিনি রাজধানীতে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। এসময় ওবায়দুল কাদের আরো বলেন,সংবিধানের আলোকে নির্বাচন হবে। সংবিধানেই সকল সমস্যার সমাধান দেয়া আছে।

এর আগে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন নারায়ণগঞ্জের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে দেখতে যান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি সেখানে কিছু সময় অবস্থান করেন এবং চিকিৎসকদের কাছ থেকে মেয়র আইভীর শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন। এখন তার অবস্থা আগের চেয়ে উন্নতি হয়েছে বলেও তিনি জানান।

আইভীকে দেখে বেরোনোর সময় হাসপাতালের বাইরে সাংবাদিকদের কাছে ওবায়দুল কাদের বলেন, আইভীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি তাঁর পায়ে ইটের আঘাত লাগার কথা বলেছেন। তাঁকে এখন অনেকটা ভালোই মনে হয়েছে। চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাঁরা জানিয়েছেন, আইভীকে হাসপাতালে আরও ৪/৫ দিন থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার সিটি করপোরেশনের হকার উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সাংসদ শামীম ওসমানের অনুসারীদের সঙ্গে মেয়র আইভীর সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) এলাকায় হকার উচ্ছেদ কেন্দ্র করে মেয়র আইভী ও সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে কথা বলবেন না আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি এখন কিছু বলবো না।’

নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন, ব্যবস্থা নেবেন কী না? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি এখন কিছু বলবো না।’

মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভির সম্পর্কে বলেন, ‘মাইনর একটা স্ট্রোক করেছে। এখন আউট অব ডেঞ্জার। চার-পাঁচদিন পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে।’

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে হকার উচ্ছেদ অভিযান নিয়ে গত মঙ্গলবার সংঘর্ষের পর আইভী-শামীম দু’জনকেই ঢাকায় তলব করার কথা জানিয়েছিলেন ওবায়দুল কাদের। তবে এর আগেই গতকাল (বৃহস্পতিবার) বিকেল ৪টার দিকে নারায়ণগঞ্জ নগর ভবনে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন মেয়র আইভী। পরে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে ঢাকায় আনা হয়। বর্তমানে তিনি ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ শহরে হকার উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমানের মধ্যে দ্বন্দ্ব নিয়ে যে আশঙ্কা করা হচ্ছিল তাই সত্য হয়েছে। দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে মঙ্গলবার বিকালে বন্দর নগরী রণক্ষেত্রে পরিনত হয়। এ ঘটনায় আহত হয় অন্তত ৫০ জন। এদের একজন স্বয়ং মেয়র আইভী।

প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে আইভি বলেন, আমি মৃত্যুকে ভয় করি না। আমি শান্তিপূর্ণভাবে হেঁটে আসছিলাম। চাষাড়ার রাইফেলস ক্লাবে বসে শামীম ওসমান আমার ওপর হামলা চালানো নির্দেশ দিয়েছেন। নির্দেশ পেয়ে তার লোকজন ইট পাটকেল ছোড়ে। এটা নিরস্ত্র লোকের সশস্ত্র হামলা। এ হামলায় সাংবাদিকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।

সিটি করপোরেশনে একমাত্র নারী মেয়র আইভী অবিলম্বে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের পদত্যাগ দাবি করেন।