চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

তাবলিগের আমির সা’দের ভিসা বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ

প্রকাশ: ২০১৮-০১-১০ ১৩:০৫:৩১ || আপডেট: ২০১৮-০১-১০ ১৩:০৫:৩১

বিশ্ব ইজতেমাকে কেন্দ্র করে রাজধানীর ডেমরা রোডের কাজলায় তাবলিগ জামায়াতের কর্মীরা সড়ক অবরোধ করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা এই বিক্ষোভ শুরু করেন। জানা যায়, তাবলিগ জামাতের আমির মাওলানা মুহাম্মদ সা’দ যাতে বাংলাদেশে আসতে না পারেন সেই দাবিতে তারা বিক্ষোভ শুরু করেন।

যাত্রাবাড়ি থানার ওসি আনিসুর রহমান জানান, অবরোধের ফলে ওই এলাকাটিতে গাড়ি চলাচল বন্ধ রয়েছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি ঠেকাতে সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ‘শান্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে’ গত ৭ জানুয়ারি যাত্রবাড়ীতে জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়ায় অনুষ্ঠিত তাবলিগের শুরা সদস্য ও আলেমদের বৈঠক হয়। সেখানে এবারের ইজতেমায় মাওলানা সা’দ এর না আসার বিষয়টি সিদ্ধান্ত হয়।

ওই বৈঠকের সিদ্ধান্ত সেদিন রাতেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে হস্তান্তর করা হয়। তখন সবাই জানতেন ওই বৈঠকের সিদ্ধান্তের বাইরে মাওলানা সা’দ বাংলাদেশে আসবেন না।

তবে ভারতে সফরকারী সদস্যদেরকে মাওলানা সা’দ ও তার পক্ষ থেকে যে প্রতিবেদন দিয়েছিলেন সেখানে তিনি স্পষ্ট বলে দিয়েছিলেন যে, আগের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে তিনি এবারের বিশ্ব ইজতেমায়ও অংশগ্রহণ করবেন।

বেশ কিছুদিন আগে ‘তাবলিগ করা ছাড়া কেউ বেহেশতে যেতে পারবে না’ মাওলানা সা’দ এর এমন বক্তব্যের জের ধরে বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়।

চলতি বছর ১২ জানুয়ারি ও ১৯ জানুয়ারি দুই দফায় তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম দফায় ১৪ জানুয়ারি ও দ্বিতীয় দফায় ২১ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে, তাবলিগ জামাতের আমিরের পদ থেকে মাওলানা মুহাম্মদ সা’দকে সরিয়ে দেয়া হলে বিশ্ব ইজতেমা বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় স্থানান্তরের হুমকি দিয়েছে মালয়েশিয়া তাবলিগের শুরা কর্তৃপক্ষ। রোববার বাংলাদেশ তাবলিগ জামাতের শুরাকে লেখা এক চিঠিতে মালয়েশিয়া তাবলিগের শুরা কর্তৃপক্ষ এই হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, আমরা আশঙ্কা করছি তাবলিগের ফায়সাল এবং আমিরের দায়িত্ব নিজামুদ্দিনের (তাবলিগের মারকাজ) প্রতিনিধিদের থেকে কেড়ে নেয়া হতে পারে। এটা শুধু বিশ্বব্যাপী তাবলিগ জামাতেই নয়, বাংলাদেশেও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে। কারণ, সারা বিশ্বের অধিকাংশ তাবলিগ মারকাজ নিজামুদ্দিনকে বিশ্ব তাবলিগ মারকাজ এবং সংগঠন ও প্রশাসনের কেন্দ্র মনে করে।

এতে বলা হয়, মাওলানা মুহাম্মাদ সা’দের বর্তমান পদ-পদবি নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে একটি বৈঠক হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এই অবস্থায় মালয়েশিয়া তাবলিগের শুরা সর্বসম্মতভাবে সবাইকে জানাচ্ছে যে, মাওলানা সা’দই হচ্ছেন তাবলিগ জামাতের বর্তমান আমির। মাত্র ১ শতাংশের কম সদস্য এই সিদ্ধান্তের বিরোধী।