চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২২ আগস্ট ২০১৮

চমেক হাসপাতালে ডায়রিয়ার রোগীদের চিকিৎসার অবহেলার অভিযোগ

প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৮ ২৩:৫৮:৪১ || আপডেট: ২০১৮-০১-০৯ ১২:৩৬:৪৮

এস. আনোয়ার
সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক 

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। শীতের প্রভাবে রোটা ভাইরাস জনিত কারণে ডায়রিয়া হচ্ছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। এরমধ্যে শিশু ওয়ার্ডে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীদের জন্য করা হয়েছে আলাদা ইউনিট। কিন্তু আলাদা ইউনিটে চিকিৎসার অবহেলার অভিযোগ করেছেন রোগীর স্বজনেরা।

হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ঘুরে দেখা যায়, ওয়ার্ডের বাম দিকের গলিতে আলাদা ইউনিট করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে ডায়রিয়া রোগীদের। গত এক সপ্তাহে প্রায় বিশ জন ডায়রিয়ার আক্রান্ত রোগী ওই ইউনিটে ভর্তি হয়েছেন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

চিকিৎসার অবহেলার অভিযোগ এনে শুক্রবার রাতে মেয়ে সাদিয়াকে নিয়ে হাসপাতালে আসা হোসনে আরা বলেন, ‘ভাইরাস ছড়িবে পড়বে এমন অজুহাত দেখিয়ে ডাক্তাররা রোগী দেখতে আসছেন না। চিকিৎসার জন্য রোগীকে নিয়ে যেতে হচ্ছে নার্স রুমে।’

‘ইউনিটে এসে রোগী দেখলে যদি ভাইরাস ছড়ায়, নার্স স্টেশনে রোগীকে নিয়ে গেলে, সেখানে কী ভাইরাস ছড়াবে না।’ এমন প্রশ্ন রাখেন রিমি নামের আরেক অভিভাবক।

এব্যাপারে জানতে চাইলে শিশু ওয়ার্ডের সহকারি অধ্যাপক নাসির উদ্দিন বলেন, প্রতিদিন রাউন্ডে ডাক্তাররা প্রতিটি ইউনিটে রোগীদের দেখতে যান। এছাড়াও ইমারজেন্সী ডাক্তার ও ইন্টার্ন ডাক্তাররা সার্বক্ষণিক ওয়ার্ডে থাকেন। রোগীর স্বজনদের এ ধরণের অভিযোগ মিথ্যা।’

চিকিৎসার অবহেলার অভিযোগের ব্যাপারে হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল জালাল উদ্দিন সিটিজি টাইমসকে বলেন, বেডে গিয়ে চিকিৎসক রোগী দেখবেন। এটা উনাদের দায়িত্ব।‘ভাইরাস ছড়ানোর অজুহাতে চিকিৎসকসরা রোগী না দেখছেন না, এ ধরণের অভিযোগ পেলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব।’ যোগ করেন হাসপাতালের পরিচালক।