চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে: মেয়র নাছির

প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৫ ১৫:৪৬:০০ || আপডেট: ২০১৮-০১-০৫ ২১:৫০:৫৭

ইমরান এমি.
নিজস্ব প্রতিবেদক, সিটিজি টাইম্‌স

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, আমাদের সমাজ, আমাদের দেশকে আলোকিত ও উন্নত করতে হলে আগে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টাতে হবে, পরনিন্দা না করে নিজে নিজের আত্ম সমালোচনা করুন তাহলে দেখবেন আমাদের প্রিয় স্বদেশ অনেক উন্নতর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

শুক্রবার দুপুরে চিটাগাং কলেজ পলিটিক্যাল সায়েন্স এলামনাই এসোসিয়েশনের উদ্যোগে চট্টগ্রাম কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের প্রথম বারের মতো আয়োজিত পূনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

সিটি মেয়র আরো বলেন, চট্টগ্রাম কলেজ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী একটি কলেজ, অনুষ্ঠান হচ্ছে দেখতেছেন সবাই, কিন্তু যারা অনুষ্ঠানের আয়োজক তারাই জানেন অনুষ্ঠান করা কত কষ্টকর। আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে মেয়র বলেন আমি জানি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন ও সফল করতে আয়োজকরা অনেক কষ্ট করেছেন, অনুষ্ঠান সুন্দর ও সফল হয়েছে, আপনাদের শ্রম বৃথা যায়নি আপনারা প্রথমবারেই সফল হয়েছেন। আমাদের মনে রাখতে হবে জীবন ক্ষনস্থায়ী, সবাইকে এক সময় চলে যেতে হবে, তাই নিজের নিজেকে তৈরি করতে মা-বাবা ও সমাজকে অবজ্ঞা করলে চলবে না, মনে রাখতে হবে তাদের জন্যই আমরা পৃথীবির আলো বাতাস উপভোগ করছি, তাই আমাদের এমন কাজ করে যেতে হবে সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য যাতে মৃত্যুর পরও আমাদের কর্মের জন্য অমর হয়ে থাকতে পারি।

প্রাক্তন শিক্ষার্থী রোকন উদ্দীন চৌধুরী রিপনের সভাপতিত্বে সম্পাদক মো. শাকের খোকনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. এ.কে ফজলুল হক, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক আনোয়ারুল কবির, চট্টগ্রাম কলেজের প্রাক্তন শিক্ষক অধ্রাপক এনামুল রশিদ চৌধুরী, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স ইন্ড্রাষ্ট্রির পরিচালক অহিদ সিরাজ চৌধুরী স্বপন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যাপক এ.কে ফজলুল হক বলেন, চট্টগ্রাম কলেজ ১৫০ বছরের পুরনো একটি ঐতিহ্যবাহি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। কলেজে যখন প্রথম অনার্স চালু হচ্ছে তখন ৫টি বিষয়ের মধ্যে অন্যতম ছিলো রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগ। এ বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের নিয়ে আজকের প্রিয় মুখের ভীড়ে যে প্রাণের উৎসব হচ্ছে তা সত্যিই আনন্দ ও গর্বের।

এধরনের অনুষ্ঠানে ভুলক্রুটি থাকবে তাই স্বাভাবিক, ভূলক্রুটি ভূলে আগামীতেও যেন আরো বৃহত্তর পরিসরে আয়োজনের মাধ্যমে চট্টগ্রাম কলেজের প্রিয় মুখগুলোর শিকড় ধরে রাখতে হবে বলেও জানান তিনি।