চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮

পুলিশ পদক পাচ্ছেন চট্টগ্রামের দুই কর্মকর্তা

প্রকাশ: ২০১৮-০১-০১ ১৭:১৩:০৬ || আপডেট: ২০১৮-০১-০১ ১৮:৪৩:০০

২০১৭ সালে গুরুত্বপূর্ণ ও দুঃসাহসিক কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ পুলিশ পদক পেতে যাচ্ছেন চট্টগ্রামের দুই কৃতি পুলিশ কর্মকর্তা।এই দুই চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা হলেন- চট্টগ্রাম নগর পুলিশের আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলমগীর এবং পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রোর পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

আগামী ৮ জানুয়ারি পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এই কৃতি পুলিশ কর্মকর্তাদের পদক পরিয়ে দেবেন বলে জানা গেছে। পদক প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তা।

চট্টগ্রামে গত বছরের একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে ড্রেনে ফেলে দেওয়া এক নবজাতক শিশুকে উদ্ধার করেন আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলমগীর। পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি এবং মেডিক্যাল টিমের দীর্ঘ প্রচেষ্টায় শিশুটিকে বাঁচিয়ে তোলেন তিনি। শিশুটির নাম রাখেন ‘একুশ’। পরবর্তীকালে আদালতের মাধ্যমে উক্ত শিশুকে একটি নিঃসন্তান দম্পতির কাছে হস্তান্তর করে শিশুটির অভিভাবকত্ব নিশ্চিত করা হয়। এমন গুরুত্ব্পূর্ণ ও ভালো কাজের স্বীকৃতি সরূপ বাংলাদেশ পুলিশ পদক লাভ করেন পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ আলমগীর।

অপরদিকে গুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর মামলার রহস্য উদঘাটন, দুঃসাহসিক অভিযান পরিচালনা করে অসীম সাহসিকতায় আসামি গ্রেপ্তারসহ নানা অভিযানে সফল ও একজন চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে পুলিশ পদক লাভ করেছেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রোর পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের গুরুত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ পুলিশের ১৮২ সদস্য এবার পদক পেতে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে অসীম সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ৩০ জনকে ‘বাংলাদেশ পুলিশ পদক’ (বিপিএম) পদক প্রদান করা হচ্ছে। এ ছাড়া ৭১ জনকে ‘রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক’ (পিপিএম) দেওয়া হচ্ছে।