চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮

আটজন মিলে ধর্ষণের পর শিশু মিমকে খুন

প্রকাশ: ২০১৮-০১-৩১ ২১:৪৭:৩০ || আপডেট: ২০১৮-০২-০১ ১৫:২৬:৪৩

চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানার বিশ্বকলোনির ৯ বছরের শিশু ফাতেমা আক্তার মিমকে আটজন মিলে ধর্ষণের পর নির্মমভাবে খুন করা হয়। রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার মনিরুল ইসলাম মনু (৪৯) এ তথ্য দিয়েছে।

মনুর তথ্যের ভিত্তিতে মো. মিরাজ (২৭) নামে আরও একজনকে গ্রেফতার করেছে আকবর শাহ থানা পুলিশ। ধর্ষণে জড়িত আটজনের বিষয়ে তথ্য দিয়ে মিরাজ বুধবার আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

আকবর শাহ থানার ওসি আলমগীর মাহমুদ বলেন, ‘যে বাসায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, ভাড়া সূত্রে সেই বাসার মালিক মিরাজ। জবানবন্দি দেওয়ার পর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উৎপল কান্তি বড়ুয়া বলেন, ‘মনুসহ আটক ছয়জন জানিয়েছিলেন- মিরাজের বাসায় কেউ ছিলেন না। সবাই গ্রামের বাড়িতে গিয়েছিলেন। বিকল্প চাবি মনুর কাছে ছিল। সেই সুযোগে মনু মিমকে ওই বাসায় নিয়ে যায়। জবানবন্দিতে এসেছিল সাতজন মিলে মিমকে ধর্ষণের পর হত্যার কথা। কিন্তু মিরাজের জবানবন্দিতে আটজনের কথা এসেছে।’

প্রসঙ্গত, গত ২১ জানুয়ারি রাতে নগরীর আকবর শাহ থানার বিশ্বকলোনির আই ব্লকের আয়শা মমতাজ মহলের সিঁড়িতে মিমের মরদেহ পাওয়া যায়। প্রথমেই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ভবনের কেয়ারটেকার মনিরুল ইসলাম মনুকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরা হল, বেলাল হোসেন বিজয় (১৮), রবিউল ইসলাম রুবেল (১৬), হাছিবুল ইসলাম লিটন (২৬), আকসান মিয়া (১৮), মো. সুজন (২০) এবং মনিরুল ইসলাম মনু (৪৯)। পাঁচজনই আদালতে ঘটনার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।