চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

মুফতি ইজহারের ২০ দলে যাওয়া আটকে গেল

প্রকাশ: ২০১৮-০১-২৯ ১৪:৪৮:০৭ || আপডেট: ২০১৮-০১-২৯ ১৫:৩৫:২৮

শোনা যাচ্ছিল ২০ দলীয় জোটের শরিকদের সঙ্গে আলোচনার পরই মুফতি ইজহারের নেতৃত্বাধীন নেজামে ইসলাম পার্টির ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। কিন্তু শরিকদের বাধায় আটকে গেল সেই প্রক্রিয়া। আপাতত মুফতি ইজহারের যোগ দেয়া হচ্ছে না বিএনপি জোটে।

রবিবার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে মূলত খালেদা জিয়ার মামলার রায় নিয়ে আলোচনা হলেও মুফতি ইজহারের ২০ দলে যোগ দেয়ার প্রসঙ্গটিও উঠে আসে। তখন শরিকদের কেউ তার অতীত কর্মকাণ্ড নিয়ে খালেদা জিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। পরে তার বিষয়টি কিছুদিন পর্যবেক্ষণ করার কথা বলেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নেজামে ইসলাম পার্টির জোটে যোগদানের বিষয়টি উত্থাপন করেন।

এ সময় এর বিরোধিতা করেন খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা ইসহাক। তিনি বলেন, মুফতি ইজহার বিএনপির সঙ্গেও ছিলেন, আবার নৌকার সঙ্গেও ছিলেন। যদিও তিনি খালেদার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘ম্যাডাম জোটে কাকে নেবেন বা নেবেন না এটা আপনার ব্যাপার। তবে নেজামে ইসলাম পার্টির অনেক সমস্যা রয়েছে।’ এ সময় খালেদা জিয়া বলেন, এসব তো জানি না। ঠিক আছে আমরা আরো খোঁজখবর নেব।

পরে মাওলানা ইসহাকের সঙ্গে যোগ দেন জমিয়তে উলামার প্রতিনিধি মাওলানা মহিউদ্দীন। তিনিও মুফতি ইজহারের জোটে যোগ দেওয়ার প্রস্তাবের বিরোধিতা করেন।

এর আগে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে নতুন শরিক দল হিসেবে যোগ দিতে শীর্ষ নেতাদের নিয়ে জোটনেত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে শনিবার রাতে সাক্ষাৎ করেছিলেন মুফতি ইজহারুল ইসলাম চৌধুরী।

নেজামে ইসলাম পার্টি একটি অনিবন্ধিত রাজনৈতিক দল। দলটির একটি অংশ মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামীর নেতৃত্বে ইসলামী ঐক্যজোটে আছে। তিনি (নেজামী) দলটির ওই অংশের চেয়ারম্যান। মুফতি ইজহার চার দলীয় জোটের সময় ইসলামী ঐক্যজোটের অন্যতম নেতা ছিলেন। পরে ইসলামী ঐক্যজোট ভেঙে গেলে তিনিও ঐক্যজোটের একটি অংশের চেয়ারম্যান হিসেবে নিজেকে দাবি করতেন।

জোটের শরিক সাম্যবাদী দলের কমরেড সাঈদ আহমদ বলেন, ‘মূলত বেগম খালেদা জিয়ার মামলার রায় নিয়ে কথা হয়েছে বৈঠকে। ফাঁকে মুফতি ইজহারের বিষয় আসলেও কয়েকজন প্রতিবাদ করেন। পরে কোনো সিদ্ধান্ত আর এ বিষয়ে হয়নি।

তাহলে কি জোটে তার যাওয়া হচ্ছে না- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, মনে হয় আটকে গেছে।